খৃষ্টান মিশনারীর দোকান বন্ধ হয়ে গেলো …..।।

Spread the love

এমন আইন আনলো নেপাল, এক দিনে সব খৃষ্টান মিশনারির দোকান বন্ধ হয়ে গেলো
…..
.
কোনকিছু করার সদিচ্ছা আর সাহস থাকলে কি করা যায় তা নিজেই করে দেখিয়ে দিলো ছোট্ট দেশ নেপাল। একদা হিন্দু দেশ এমন এক আইন আনলো যা দেখে গোটা দুনিয়ার খৃষ্টান সমাজ রেগে লাল। অনেকে যেখানে নেপালের ওপর নিষেধাজ্ঞা লাগানোর হুমকি দিচ্ছে আবার অনেকে ধর্মের স্বাধীনতার দোহাই দিচ্ছে। তবে কারোর কথায় কোনরকম কর্নপাত করছে এই পাহাড়ি দেশটি।
..

#কি_সেই_আইন ?
আসলে নেপাল সংবিধান সংশোধন করে নতুন আইন এনেছে যেখানে ধর্ম পরিবর্তনের ওপর পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা জারির পাশাপাশি একে দন্ডনীয় অপরাধ বলে গন্য করা হয়েছে। এবং রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভান্ডারির স্বাক্ষরের পর তা আইন হিসাবে লাগুও হয়ে গেছে।
..

আর এর জেরেই গোটা বিশ্ব জুড়ে গেল গেল রব তুলেছে সমস্ত মিশনারি । তাদের মতে নেপাল এখন সেকুলার বা ধর্মনিরপেক্ষ দেশ যেখানে সবার নিজের নিজের ধর্ম পালনের অধিকার আছে। আর সরকারের এই আইন ধর্ম পালনের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ। তবে তাদের এই অভিযোগ সম্পুর্ণ মিথ্যা। কারণ ধর্ম পালনের ওপর কোন নিষেধাজ্ঞা নেই, শুধু টাকার বিনিময়ে বা লোভ দেখিয়ে ধর্ম পরিবর্তনের ওপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে যা এইসব মিশনারিগুলি গোটা বিশ্বজুড়ে করে থাকে।
অনেকে আবার মনে করছে এই পদক্ষেপের মাধ্যমে নেপাল আবার হিন্দু রাষ্ট্রের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে যার পেছনে ভারতের হাত থাকতে পারে।
তবে এই ছোট্ট দেশটি যেভাবে আন্তর্জাতিক শক্তির কাছে মাথা নত না করে এমন এক সাহসী সির্দ্ধান্ত নিলো তা দেখে ভারতের মতো দেশের অনেক কিছু শেখার আছে যেখানে এই সব বিদেশী মিশনারির বাড় বাড়ন্ত এবং গরিব আদিবাসীদের টাকার বিনিময়ে ধর্ম পরিবর্তনের ভুরি ভুরি অভিযোগ ওঠে।