পূর্ববঙ্গের হিন্দুরা অবশ্যই ভারতের কাছ থেকে ভরসা চাইতে পারেন।।।

Spread the love

পূর্ববঙ্গের হিন্দুরা অবশ্যই ভারতের কাছ থেকে ভরসা চাইতে পারেন. দয়াদাক্ষিণ্যের প্রশ্নই নয়, এটা তাঁদের অধিকার. ভারত সেই ভরসার মর্যাদা  না রাখতে পারলে তা আমাদের লজ্জা. আমি এ বিষয়ে আগে বহুবার বলেছি, পুববাংলার হিন্দুরা কখনও নিজেদের অভারতীয় ভাববেন না, ভারতকে বিদেশ ভাববেন  না. এদেশ পৃথিবীর সমস্ত হিন্দুর ছিল, আছে, থাকবে.তবে আপনাদের একান্ত অনুরোধ, মন থেকে কখনও নিজেদের “বাংলাদেশ”  নামক কোন সার্বভৌম রাষ্ট্রের নাগরিক ভাববেন না. আমরা বাংলাদেশ বলতে বুঝি অবিভক্ত বাংলা, প্রাক 1947-এর বাংলা, যে বাংলাদেশ আমাদের স্মরণে-মননে-উপলব্ধিতে, অস্থিমজ্জায়, আবেগ-অনুভূতিতে মিশে আছে. আজকের তথাকথিত বাংলাদেশ আমাদের কাছে অধিকৃত পূর্ববঙ্গ, আর পাকিস্তান হল অধিকৃত উত্তর-পশ্চিম ভূখণ্ড. পাকিস্তান হিন্দুদের উপর জোর করে চাপিয়ে দেওয়া. রাতারাতি কয়েক কোটি হিন্দুর ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাদের জাতীয় পরিচয় বদলে গেল, কোন স্বাভিমানী হিন্দুর পক্ষে এটা মেনে নেওয়া সম্ভব নয়. আর তাই ইসলামী পাকিস্তান বা পূর্ব পাকিস্তান বা তথাকথিত বাংলাদেশকেও পৃথক রাষ্ট্র বলে মেনে নেওয়া সম্ভব নয়. ভারতের মোল্লাচাটা, ভণ্ড সেকুলাররাই শেষ কথা নয়, পুববাংলায় গিয়ে ইলিশ মাছের পাত চেটে সম্প্রীতির ঢেঁকুর তোলা দুর্বুদ্ধিজীবিরা নরকে যাক, অবিভক্ত বাংলাদেশের হিন্দু উত্তরাধিকার আমরা চিরকাল টিকিয়ে রাখব.