ব্রাক্ষণবাড়িয়া কাদিয়ানী মসজিদে হামলার পর এখন কি বলা হবে সুন্নি মুসলমানদের বিশ্বাসে আঘাত করে এমন কিছু বিশ্বাস করে ওরাই আগে দোষ করেছে?
এই দেশটা কি এখন কওমী মাদ্রাসা চালায়? ব্রাক্ষণবাড়িয়ার তিনশো আহমদিয়া মুসলিম সম্প্রদায় এখন ঘর থেকে বের হতে পারছে না।

এমনকি খতমে নব্যুয়ত নামের কওমী জঙ্গি সংগঠনের ভয়ে তারা একঘরের মত বাস করে। পাকিস্তানের রাজনীতিবিদরা হুজুরদের খুশি রাখতে আহমদিয়া মুসলিমদের অমুসলিম ঘোষণা করেছে অনেক আগেই। এবার বাংলাদেশের পালা। শফি,  আজহারীকে খুশি করতে বাংলাদেশে এটা হলে অবাক হওয়ার কিছু নেই। রানাদাশ গতকাল আদালতে  সিটি নির্বাচনের সময় সরস্বতী পুজার রিটে হেরে বলেছিলেন,  বুঝতে পারছি না কোথায় যাচ্ছি। ভবিষ্যতে কোথায় যাবো?… হিন্দুরা যত যাই বলুন ক্যাব হওয়ার পর এটলিস্ট ভারতের নাগরিকত্ব নিয়ে একটা আশ্রয় পাবে।  কিন্তু এই আহমদিয়া মুসলিমরা কোথায় যাবে?  কওমী সুন্নি জঙ্গিরা এদের মেরে ফেললেও সরকার কিচ্ছু বলবে না। ভাবা যায়, শেখ হাসিনাকে নিয়ে অত্যন্ত অরুচিকর মন্তব্য করে মিজানুর রহমান আজহারী কিচ্ছু হয় না অথচ এই আজাহারীকে কে কটুক্তি করেছে তাকে পুলিশ ধরে এনেছে!

কোথায় যাচ্ছে বাংলাদেশ?  শরিয়ত বয়াতী গ্রেফতার, সরস্বতী পুজার ছুটিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানো, আজ ব্রাক্ষণবাড়িয়া আহমদিয়া মুসলিমদের উপর হামলা।  ইসলামী মৌলবাদীদের যে পজিশনে বাল সরকার নিয়ে যাচ্ছে তা নিয়ে পোগতিশীল বাল সমর্থদের ভাবনা কি জানতে ইচ্ছা করে!