#মার্কিন প্রতিবেদনে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে #হিন্দুদের ওপর হামলার তালিকা!!!

ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক যুক্তরাষ্ট্রের এক সরকারি প্রতিবেদনে উঠে এসেছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে  হিন্দুদের ওপর হামলার তালিকা!!!
প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু, বিশেষ করে হিন্দুদের ওপর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক হামলার ঘটনা ঘটেছে। কিছু ক্ষেত্রে এসব হামলার জন্য দায়ী ইসলামিক স্টেট এবং আল কায়েদা।

চলতি বছরের অক্টোবরে বাংলাদেশের পূর্বাঞ্চলে শতাধিক গ্রামবাসী মিলে হিন্দুদের ৫০টিরও বেশি ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে। এ সময় তারা ১৫টি হিন্দু মন্দিরেও হামলা চালায়। আর এসব করা হয়, ইসলামের প্রতি আক্রমণাত্মক একটি ফেসবুক পোস্টের ওপর ভিত্তি করে।

হিন্দু, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ ও  অন্য সংখ্যালঘুদের ওপর উগ্রবাদী দলগুলোর চালানো হামলায় অন্তত ২৪ জন নিহত হয়েছেন।

পাকিস্তানের ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা বলছেন দেশটিতে সংখ্যালঘু অধিকার রক্ষায় সরকারের ভূমিকা পরিস্থিতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ ছিল না। এছাড়া খ্রিস্টান, হিন্দু, শিখ এবং আহমদিয়া সম্প্রদায়ের সদস্যদের ওপর দাফতরিক বৈষম্য অব্যাহত ছিল।

প্রতিবেদনে বলা হয়, খ্রিস্টান ও হিন্দু সংগঠনগুলো বিশেষ করে তাদের সম্প্রদায়ের মেয়েদের জোরপূর্বক ধর্মান্তরের শঙ্কার কথা জানিয়েছেন।

ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে ২০১৫ সালের এপ্রিল থেকে শুরু করে ২০১৬ সালের মার্চ পর্যন্ত দুই হাজার ৩৭২টি মুসলিমবিদ্বেষী হামলা চালানো হয়েছে। খ্রিস্টান, হিন্দু, শিখ এবং অন্য ধর্মাবলম্বীদের বিরুদ্ধে সংঘটিত হয়েছে এক হাজার ৫৫টি অপরাধ। অর্গানাইজেশন ফর সিকিউরিটি অ্যান্ড কোঅপারেশন ইন ইউরোপ এসব অপরাধের এ তালিকা দিয়েছে।