হিন্দি জাতীয়তাবাদ নিয়ে সহি বাঙ্গালী চিন্তিত। বুদ্ধিজীবিরা নেমে গেছে মঞ্চে। ‘হিন্দি জাতীয়তাবাদের দালাল বিজেপি’ সারা দেশে হিন্দি জোর করে চালাবে – ঘোরতর প্রচার চলছে অমিত শাহের সাম্প্রতিক মন্তব্যকে কেন্দ্র করে। গুজরাতি অমিত শাহও সম্ভবত এতটা হিন্দিনিষ্ঠ চিন্তা করেননি।
   এবার একটু চোখ খুলুন। বাঙ্গালীর রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে আরবি শিক্ষা (মাদ্রাসা শিক্ষা) খাতে ৪০১৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস সরকার। কেউ প্রতিবাদ করেছে? বাঙ্গলাকে সরিয়ে উর্দুর জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে শিক্ষা দপ্তর। বাঙ্গলাকে রক্ষা করতে দাড়িভিটে প্রাণ দিয়েছে তাপস-রাজেশ। কোনো বুদ্ধিজীবি পথে নেমেছে?
   আসল প্রতিপক্ষকেই চিনতে পারেনি বাঙ্গালী। হিন্দি নয়, বাঙ্গলায় প্রকৃত আগ্রাসী শক্তি আরবি ও উর্দুর আড়ালে আরবি।

   আরবি সাম্রাজ্যবাদ যে কত ভয়ঙ্কর তা নিয়ে ধারনা আছে খুব কম জনের। পৃথিবীতে ২৫টি দেশের রাষ্ট্রভাষা আরবি।
   আলজিরিয়া, বাহরিন, চাদ, কোমারস, জিবুতি, মিশর, এরিট্রিয়া, ইরাক, জর্ডন, কুয়েত, লেবানন,  লিবিয়া, মরিশনিয়া, মরোক্কো, ওমান, প্যালেস্তাইন, কাতার, সৌদি আরব, সোমালিয়া, সুদান, সিরিয়া, তাঞ্জানিয়া, টিউনিসিয়া, ইউএই, ইয়েমেন। এছাড়াও আরো ৬টি দেশে আরবি রাষ্ট্রভাষাতুল্য মর্যাদা পায় – ইরান, তুরস্ক, নাইজার, সেনেগাল, মালি ও সাইপ্রাস। অথচ দেশগুলোর নিজস্ব ভাষা ছিল। সব শেষ করে দিয়েছে আরব।

    আমাদের দেশেও চলছে আরবির প্রসার মাদ্রাসার মাধ্যমে। তার মাধ্যমে আসছে আরব সাম্রাজ্যবাদ- পৃথিবীর ভয়ঙ্করতম শক্তিশালী সাম্রাজ্যবাদ।

সুপ্রিয় ব্যানার্জী