এই দেশটি ইউরোপীয় ইউনিয়নের একমাত্র যে দেশে একটিও মসজিদ নাই বা তৈরি করার অনুমতিও নাই। পৃথিবীতে এমন একটি দেশও রয়েছে যেখানে মুসলমানরা বসবাস করেন তবে সেখানে মসজিদ নির্মাণের অনুমতিও নেই। এই দেশের নাম স্লোভাকিয়া। স্লোভাকিয উন্নত বিশ্বের একটি দেশ, যেখানে মুসলমানদের অবশ্যই বাস করে তবে সেখানে মসজিদও নেই বা তৈরি করার অনুমতি নাই। তথ্য অনুসারে, স্লোভাকিয়ায় বসবাসকারী মুসলমানরা তুর্কি এবং উগার সতেরো শতক থেকে এখানে বসবাস করে আসছে। ২০১০ সালে স্লোভাকিয়ায় মুসলমানদের জনসংখ্যা ছিল প্রায় ৫২ হাজার।

 

স্লোভাকিয়া বিশ্বের এমন একটি দেশ, যেখানে কোনও মসজিদ নেই এবং সেখানে কোনও মসজিদও তৈরি করা যায় না। এমনকি সেখানকার সরকার তাদের দেশে ইসলামকে অফিসিয়াল স্ট্যাটাস দিতে অস্বীকার করেছে।এই দেশটিকে একসময় উগোস্লাভিয়া বলা হত। এর পরে, যখন এটি ভেঙেছিল, স্লোভাকিয়া একটি পৃথক দেশে পরিণত হয়েছিল। যুগোস্লাভিয়া ভেঙে তৈরি হওয়া বসনিয়া ও আলবেনিয়ার মতো অন্যান্য দেশের অনেক মুসলমান এখানে শরণার্থী হয়ে এসেছিলেন। এই জায়গার রাজধানী ব্রাটিসিওভা। এশিয়া থেকে আসা অন্যান্য মুসলমানরাও আছেন।

 

স্লোভাকিয়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য দেশ। তবে এটি ইউরোপীয় ইউনিয়নের সর্বশেষে এর সদস্য হয়। এ দেশে একটি মসজিদ নির্মাণ নিয়েও বিতর্ক রয়েছে। 2000 সালে, স্লোভাকিয়ার রাজধানীতে একটি ইসলামিক কেন্দ্র তৈরির বিষয়ে একটি বিতর্ক হয়েছিল। ব্রাতিসিওভের মেয়র স্লোভাক ইসলামী ওয়াকফ ফাউন্ডেশনের সমস্ত প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন।

এমন একটি দেশ যেখানে মসজিদ বা নির্মাণের অনুমতি নেই
এমন একটি দেশ যেখানে মসজিদ বা নির্মাণের অনুমতি নেই

"use strict"; var adace_load_60fd88c1e5448 = function(){ var viewport = $(window).width(); var tabletStart = 601; var landscapeStart = 801; var tabletEnd = 961; var content = '%3Cdiv%20class%3D%22adace_adsense_60fd88c1e5110%22%3E%3Cscript%20async%20src%3D%22%2F%2Fpagead2.googlesyndication.com%2Fpagead%2Fjs%2Fadsbygoogle.js%22%3E%3C%2Fscript%3E%0A%09%09%3Cins%20class%3D%22adsbygoogle%22%0A%09%09style%3D%22display%3Ablock%3B%22%0A%09%09data-ad-client%3D%22%20%20%20%20%20%20%20%20%20%28adsbygoogle%20%3D%20window.adsbygoogle%20%7C%7C%20%5B%5D%29.push%28%7B%7D%29%3B%20%22%0A%09%09data-ad-slot%3D%229569053436%22%0A%09%09data-ad-format%3D%22auto%22%0A%09%09%3E%3C%2Fins%3E%0A%09%09%3Cscript%3E%28adsbygoogle%20%3D%20window.adsbygoogle%20%7C%7C%20%5B%5D%29.push%28%7B%7D%29%3B%3C%2Fscript%3E%3C%2Fdiv%3E'; var unpack = true; if(viewport=tabletStart && viewport=landscapeStart && viewport=tabletStart && viewport=tabletEnd){ if ($wrapper.hasClass('.adace-hide-on-desktop')){ $wrapper.remove(); } } if(unpack) { $self.replaceWith(decodeURIComponent(content)); } } if($wrapper.css('visibility') === 'visible' ) { adace_load_60fd88c1e5448(); } else { //fire when visible. var refreshIntervalId = setInterval(function(){ if($wrapper.css('visibility') === 'visible' ) { adace_load_60fd88c1e5448(); clearInterval(refreshIntervalId); } }, 999); }

})(jQuery);