Home Bangla Blog ইতিহাসে যারা নিজেদের খুজে পাই না তারাই ইতিহাসকে বিকৃত করবে।

ইতিহাসে যারা নিজেদের খুজে পাই না তারাই ইতিহাসকে বিকৃত করবে।

201

সুপ্রিয় ব্যানার্জী

বাংলাদেশ প্রতিদিন চেষ্টা করছে বাঙ্গালী ঐতিহ্যকে দখল করতে। কারন বাঙ্গালীর কৃষ্টি সংস্কৃতিতে বাংলাদেশের অবদান শূন্য নয়, বরং নেগেটিভ। তাই নিত্য নতুন আকাশকুসুম গল্প ফেঁদে দখলদারি করে চলেছে বাংলাদেশের মৌলবাদীরা। তারা প্রত্যেকেই উচ্চশিক্ষিত ও প্রভাবশালী। মিথ্যা প্রচার বছরের পর ধরে করতে করতে তারা একদিন সেটাকেই সত্য বলে দাবি করে।। নিচের লেখাটি পড়ুন —-

   অনেকে বলেন, বাংলা ভাষার জন্ম হয়েছে ‘সংস্কৃত’ ভাষা থেকে। কারও মতে ‘প্রাচীন প্রাকৃত’, কারও মতে ‘গৌড়ি প্রাকৃত’ থেকে বাংলা ভাষার জন্ম। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় সংস্কৃত ভাষা কখনও জনগণের মুখের ভাষা ছিল না। এখনও জনগণের মুখের ভাষা নয়। এটা হচ্ছে হিন্দুদের ধর্মীয় ভাষা। বাংগালী জাতি এবং বাংলা ভাষার উপরে হিন্দুদের কোণ ইতিহাস নেই। উভয়ের সাথে জড়িত আছে মুসলমানের ইতিহাস।
   এ প্রসঙ্গে ঐতিহাসিক ও গবেষক ড. মোহাম্মদ হান্নান লিখেছেন, “হযরত আদম সফিউল্লাহ আলাইহিস সালাম থেকে আমাদের এই মানব জাতির শুরু। কিন্তু হযরত নূহ আলাইহিস সালাম  সময়ে সমগ্র পৃথিবীতে এক মহাপ্লাবন ঘটেছিল। এই মহাপ্লাবনে দুনিয়ার সকল কিছু ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল। কেউ জীবিত ছিল না, শুধু হযরত নূহ আলাইহিস সালাম এর নৌকায় আরোহণ করেছিলেন ৭২-৮২ জন উম্মত; এই ৭২-৮২ জন থেকেই মানব জাতির আবার নতুন ইতিহাস শুরু।এই নতুন ইতিহাসে জাতিরও সম্পর্ক ছিল। বেঁচে যাওয়া ৭২-৮২ জনের মধ্যে ছিলেন হযরত নূহ আলাইহিস সালাম এর এক সন্তান হযরত ‘হাম’ আলাইহিস সালাম।হযরত নূহ আলাইহিস সালাম এর আওলাদ হযরত হাম আলাইহিস সালামকে বললেন, ‘আপনি মানব বসতি স্থাপনের জন্যে চলে যান পৃথিবীর দক্ষিণ দিকে’।  পিতার নির্দেশ পেয়ে হযরত হাম আলাইহিস সালাম আসেন এশিয়া মহাদেশের কাছাকাছি। সেখানে এসে তিনি তাঁর জ্যেষ্ঠ আওলাদ হযরত হিন্দ আলাইহিস সালামকে পাঠালেন ভারত উপমহাদেশের দিকে। ,হযরত হাম আলাইহিস সালাম এর আওলাদ হযরত হিন্দ আলাইহিস সালাম উনার নাম অনুসারেই ভারতের নাম হয়েছে হিন্দুস্তান। হযরত হিন্দ আলাইহিস সালাম এর দ্বিতীয় আওলাদের নাম ছিল হযরত ‘বঙ্গ’ আলাইহিস সালাম। এই  হযরত ‘বঙ্গ’-আলাইহিস সালাম এর আওলাদ আলাহিমুস সালাম উনারা বাঙালি বলে পরিচিতি লাভ করেন। সুতরাং বাঙালির আদি পুরুষ হচ্ছেন হযরত ‘বঙ্গ আলাইহিস সালাম’।”
     প্রখ্যাত ভাষাতাত্ত্বিক, শিক্ষাবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রফেসর (অবসরপ্রাপ্ত) ডঃ কাজী দীন মুহাম্মদ বলেছেন, ‘আজ সাড়ে সাত হাজার বছর আগে হযরত নুহু আলাইহিস সালাম উনার সময়ে সংঘটিত মহাপ্লাবনের পর মহান  আল্লাহ পাক উনার অস্তিত্ব ও একত্ববাদে বিশ্বাসী উনার প্রপৌত্র হযরত বঙ আলাইহি সালাম এ অঞ্চলে বসতি স্থাপন করেন। এরপর যে জনগোষ্ঠি গড়ে ওঠে তা-ই বঙ্গ জনগোষ্ঠি নামে অভিহিত হয়। কালের বিবর্তনে উক্ত বঙ থেকেই বঙ্গদেশের নামকরণ হয়েছে’।
   তাই বলা যায় হযরত নূহ আলাইহিস সালাম প্রোপৌত্র হযরত বং আলাইহিস সালাম -ই হলেন প্রথম বাঙালি এবং বাংলাদেশের প্রথম মানুষ। হিন্দ আলাইহিস সালাম এর ২য় পুত্র বঙ্গ আলাইহিস সালাম এর নাম করণেই বঙ্গ ও বাংলার প্রচলন ঘটে।
তথ্যসূত্রঃ
১. ড. এম এ আযীয ও ড. আহমাদ আনিসুর রহমান রচিতপ্রবন্ধ,
২. বাংলাদেশের উৎপত্তি ও বিকাশ, ড কাজী দ্বীন মোহাম্মদ, ১ম খন্ড, ইফাবা, ২য় সংস্করণ, জুন-২০০৮  ।
৩. রিয়াজুস সালাতীন, গোলাম হোসাইন সালিম
৪. বাংলাদেশে ইসলাম , আবদুল মানান তালিব , প্রথম মুদ্রণ মার্চ ১৯৮০ , ইসলামিক ফাউন্ডেশন

%d bloggers like this: