অভিজিৎ ব্যানার্জী হচ্ছেন দ্বিতীয় বাঙালী যিনি অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন। প্রথমজন অমর্ত্য সেন। সাহিত্যে মাত্র একজন বাঙালী নোবেল পেয়েছেন তিনি রবীন্দ্রনাথ। বাঙালীদের মধ্যে আর কেউ কি নোবেল পেয়েছেন? নাহ্!…

আমি জানি আপনি বলতে চাইছেন মুহাম্মদ ইউনুসের কথা আমি ভুলে গেছি? মোটেই নয়। ইউনুসকে ‘মুসলিম’ ক্যাটাগরির লিস্টে বহু আগেই রেখে দিয়েছে যাদের রাখার কথা তারাই। আবদুস সালাম যেমন অবিভক্ত ভারতে এক পাঞ্জাবী বাবা-মার ঘরে জন্ম নিয়েছিলেন। অর্থ্যাৎ তিনি জাতিতে পাঞ্জাবী। কিন্তু দুনিয়ার সবাই জানে আবদুস সালাত নামের একজন ‘মুসলমান’ বিজ্ঞানের জন্য নোবেল লাভ করেছিলেন। স্বয়ং আবদুস সালাম নোবেল গ্রহণ অনুষ্ঠানে নিজেকে মুসলমান বলে দাবী করেছিলেন এবং জ্ঞান-বিজ্ঞানে অতিতে মুসলিমদের যে কত অবদান ছিলো নোবেল ভোজসভার পার্টিতে তা সবিস্তারে তিনি সকলের সামনে বলেছিলেন। তিনি মুসলমানদের জ্ঞান বিজ্ঞানের অতিত অবদানের কথা বলতে গিয়ে সম্ভবত বাগদাদের আলবেরুণি ইবনে সিনাদের কথাই বুঝিয়েছিলেন যারা সবাই মেসোপটেমিয়া সভ্যতার মানুষ। আবদুস সালাম কেমন করে আরবদের সঙ্গে এক জাতি হয়ে উঠেন- এই তত্ত্বের উপর নোবেল কমিটির উচিত একটি নোবেল ঘোষণা করা!

এই যে অভিজিৎ ব্যানার্জী নোবেল পেলেন সারা বিশ্বের গণমাধ্যম বলছে একজন ইন্ডিয়ান বাঙালী নোবেল লাভ করেছে। কেউ কি বলছে একজন ‘হিন্দু’ নোবেল পেয়েছে? কোন শিক্ষিত বা সভ্য দুনিয়াতে যদি মানুষের সামনে গর্ব করে বলেন নোবেল তালিকায় খ্রিস্টান বা ইহুদীদের সংখ্যা বেশি- তাহলে সেটাকে সাম্প্রদায়িক সংক্রীর্ণতা হিসেবেই দেখা হবে। এমনকি কতজন ‘হিন্দু’ নোবেল পেয়েছে এরকম লিস্ট করা হলে আমরা এই বঙ্গবাসীরাই নির্ঘাৎ তাকে সাম্প্রদায়িক বলব। কিন্তু ‘মুসলিম নোবেল লোরিয়েট’, ‘মুসলিম মণিষি’, ‘মুসলিম লেখক’ এরকম লিস্ট দেখেও আমাদের কারোর মনে হয় না এগুলো সাম্প্রদায়িক ভেদচিন্তা?