হিন্দুদের সেই দুর্ভাগ্যের কাহিনী কেউ লেখে না বলে না, জানলেও চুপচাপ রয়ে যায়।

Spread the love

গজনীর মাহমুদ আমাদের দেশের, হিন্দুদের যে ক্ষতি করেছে, যতো অর্থ সম্পদ লুট করেছে তার  খতিয়ান দেখলে শিঊরে ঊঠতে হয়। হিটলারের ইহুদীদের ওপরে অত্যচার তার কাছে অতি নদন্য। ব্রিটিশ ২০০ বছরে আমাদের দেশের থেকে তার ১০% সম্পদ নিয়ে যেতে পারেনি। কারন সেই ৭১২ সালের থেকে শুরু করে ১৯৫৭ সাল অবধি ভারতে চলেছে এক লুটের উৎসব। সেই উৎসব শেষে উচ্ছিষ্ট হিসাবে বিশেষ সম্পদ পড়ে ছিলো না।

মাহমুদের রাজস্ব সচিব “ঊথবী” সেই সব লুটের বহর লিখে রেখে গেছে। আমার কাছে সেই হিসাব আছে।

সেই থেকে শুরু করে যে পরিমান সম্পদ শুধুমাত্র আফগানিস্তান, মধ্য এশিয়া ( সমরখন্দ, বুখারা, ঘুর ইত্যাদি) গেছে,তার চেয়ে অনেক বেশী গেছে খলিফার কাছে ইস্তানবুলে।

শুধুমাত্র অর্থ নয়, দাস দাসী বালক বালিকা (যৌন দাস এবং দাসী) ইত্যদি কেনা বেচার বাজার ও ছিলো।

হিন্দুদের সেই দুর্ভাগ্যের কাহিনী কেউ লেখে না বলে না, জানলেও চুপচাপ রয়ে যায়। ভারতীয় হিন্দুদের মতো দুর্ভাগা সারা পৃথিবীতে নেই।