মমতা ব্যানার্জীর নতুন চালাকি "পুরোহিত ভাতা"…

Spread the love

মমতা ব্যানার্জীর নতুন চালাকি “পুরোহিত ভাতা”…

যখন সবাই ইমাম ভাতাকে তোষণ বলে অভিহিত করেছেন তখন সেই তোষণ চাপা দেওয়ার জন্য পুরোহিত ভাতা চালু করে ব্রাক্ষন ভোট পাওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন মমতা ব্যানার্জী ।

আমাদের সমাজে কর্মের ভিত্তিতে ব্রাক্ষন, ক্ষত্রিয়,  বৈশ্য, শুদ্র চারভাগে ভাগ করা হয়েছে যদি ব্রাক্ষনদের ভাতা প্রদান করা হয় তাহলে নাপিতদের কেউ ভাতা দিতে হবে কারন নাপিতের কাছে নখ  কেটে ব্রাক্ষন শুদ্ধ হয় না, সমস্ত পুজোর জোগাড় নাপিত ছাড়া হয় না, ডোমদের কেউ ভাতা প্রদান করতে হবে কারন ডোম ছাড়া শবদাহ দাহন হয় না, বৈষ্ণবদের কেউ ভাতা প্রদান করতে হবে কারন বৈষ্ণবরাও হিন্দু ধর্মের অন্যতম অঙ্গ ।
আমাদের সমাজে ব্রাক্ষনরা পুজো অর্চনা করে, তেমনি নাপিতরা সেই পুজো অর্চনার যাবতীয় জোগাড় করে, বৈষ্ণবদের যথেষ্ট ভূমিকা আছে, ডোমদের ও যথেষ্ট ভূমিকা আছে তাহলে ভাতা কেন শুধু ব্রাক্ষনরা পাবে?

ভাতা যদি প্রদান করতেই হয় তাহলে হিন্দু ধর্মের সাথে যুক্ত সব বর্ণের মানুষকেই দেওয়া উচিত, কিন্তু আমার প্রশ্ন হল আর কতদিন জনগনের করের টাকায় ভাতা প্রদান করে ভোট নেওয়ার রাজনীতি চলবে?

পশ্চিমবঙ্গে কর্মসংস্থান নেই, বেকারত্বের ছড়াছড়ি এই সময় পশ্চিমবঙ্গের সার্বিক উন্নয়নের কথা না ভেবে ভোটের কথা ভেবে কোটি কোটি টাকার অপচয় কেন করা হচ্ছে ।

ইমামদের ভাতা বন্ধ করে দিন তাহলে পুরোহিত ভাতা আর দিতে হবে না, ভোটের জন্য পশ্চিমবঙ্গের আর সর্বনাশ করবেন না দয়া করে, ভবিষ্যত প্রজন্মকে বাঁচতে দিন তাদের ভবিষ্যত অন্ধকার করে দেবেন না ।

মমতার পুরোহিত ভাতা একটা ফাঁদ, এতে হাততালি দিয়ে বললেন না যে মমতা হিন্দুদের হয়ে কাজ করছে, তোষনের দাগ শরীর থেকে ঝাঁড়তে মমতার এটা মাষ্টারষ্ট্রোক ।

পশ্চিমবঙ্গে প্রতিটি জনগনের কাছে আমার বিনীত অনুরোধ দয়া করে মমতা ব্যানার্জীকে ক্ষমতাচ্যুত করুন নইলে আগামী দিনে ভবিষ্যত প্রজন্মকে হাতে বাটি নিয়ে ভিক্ষা করতে হবে, মমতা ব্যানার্জী বেকারদেয় নিয়ে চিন্তা করে না, কর্মসংস্থান নিয়ে চিন্তা করে না, শিল্প-শিক্ষা-স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা করেনা, আজকের দিনে মমতা ব্যানার্জি চিন্তা করে ইমাম ভাতা, পুরোহিত ভাতা, ক্লাবকে টাকা, মেলায় টাকা, হজ টাওয়ারে টাকা, মসজিদ গড়তে টাকা দেওয়ার ।

জনগনের টাকায় রাজ্যের উন্নয়ন না করে ভোটের লোভে ভাতা দিয়ে সেই টাকা মমতা ব্যানার্জী নষ্ট করে রাজ্যের যে সর্বনাশ করছে সেটা আগামী প্রজন্ম হাড়ে হাড়ে টের পাবে ।

আজকে যারা একটা সাইকেল, ২৫ হাজার টাকা, বেকার ভাতা পেয়ে মমতা ব্যানার্জী জিন্দাবাদ বলছেন তারাই একদিন বুঝতে পারবে মমতা ব্যানার্জীকে সমর্থন করে রাজ্যের কতটা ক্ষতি তারা করেছে ।

মমতা ব্যানার্জী ভাতা দিয়ে উন্নয়ন করা যায় না কখনোও, উন্নয়ন করার জন্য কর্মসংস্থান তৈরী করতে হয কারন মানুষ যদি প্রতিদিন রোজগার করে তাহলে কেউ সরকারী করের টাকায় একটা সাইকেল, ২টাকার চালের ভরসা করবে না তারা নিজের উন্নয়ন নিজে করবে আপনাকে উন্নয়নের জোয়ার বলতে হবে না ।