মিজানুর রহমান আজহারী নামের এক পেশাদার ওয়াজ ব্যবসায়ী ফেঁসে গেছেন। ইসলামে মদ নিষিদ্ধ হবার আগে হযরত আলী এবং স্বয়ং নবী মুহাম্মাদ মদ খেতেন বলে এখন অন্যান্য ধর্ম ব্যবসায়ীদের কোপাণলে পড়েছে। তারা ফাঁসি চাচ্ছে আজাহারীর। লোকটা যদিও মিথ্যে কিছু বলেনি।  একদিন নবী মুহাম্মদ ও তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু সারগিয়াস বসে মদ পান করছিলেন। এক পর্যায়ে মুহাম্মদ মদে বেহুঁশ হয়ে পড়লে কথিত আছে একজন সৈনিক নবী মুহাম্মদের বন্ধু সারগিয়ানকে তরোয়াল দিয়ে হত্যা করে তরোয়ালটি মুহাম্মদের পাশে রেখে দেয়। মুহাম্মদের হুঁশ ফিরলে সৈনিকটি দাবী করে মুহাম্মদ উন্মত্ত অবস্থায় তার বন্ধুকে খুন করেছে। কিন্তু মুহাম্মদ নেশাগ্রস্থ থাকায় তিনি স্মরণ করতে পারছিলেন না সৈনিকটির দাবী সঠিক নাকি মিথ্যে কথা বলছে। লেখার সঙ্গে যে ছবিটা দিয়েছি সেটা ১৫০০ শতকে আঁকা মুহাম্মদের এই কাহিনীকে কেন্দ্র করে।

অন্য হাদীস থেকে জানা যায় নবীকে সকালে ও রাত্রে আয়েশা মদ পরিবেশন করতেন। ‘There are many incidents, such as Aisha pours wine for the prophet of Allah in morning and at night (Muslim-Drinks-3745).
Also Aisha brought wine tothe Prophet from inside the Mosque (Muslim-AlHayd-451).

সর্বশেষ আলী মদ পান করে নামাজে সুরা কাফিরুন ভুল করায় ইসলামে মদ নিষিদ্ধ করার জোর দাবী উঠে। এ ব্যাপারে হযরত ওমর বিশেষ ভূমিকা রাখে।… এই হচ্ছে ইতিহাস। নবী  ও সাহাবীরা একসময় মদ খেতো এটাও এখন গোপন করতে হবে। না রাখলে কেল্লা ফেলতে হবে!  আগে নাস্তিকদের টার্গেট করে এখন হুজুর হুজুরের পুটুর পিছনে লেগেছে! আপাতত এই খেলা চেয়ে দেখা ছাড়া উপায় কি? খানিকটা বিনোদনও বটে!