Monday, September 20, 2021
Home Bangla Blog পাকিস্তান নয়, ভারতই বিজয় দিবসে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ!...

পাকিস্তান নয়, ভারতই বিজয় দিবসে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ!…

যুদ্ধ হয়েছিলো পাকিস্তানের সঙ্গে কিন্তু আলাপ হচ্ছে ভারত আমাদের সাহায্য না করলে দেরী হলেও ঠিকই জিতাম… ভারত মুক্তিবাহিনীর অবদানকে ছোট করছে… ভারত কিছুই করেনি মাঝখান থেকে নাম কিনছে… ইত্যাদি ইত্যাদি। একসময় এদেশে পাকিস্তান নামটাই মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে উচ্চারণ করা যেতো না, বলতে হতো ‘হানাদার বাহিনী’। আজ বাংলাদেশ সাবালক হয়েছে। পাকিস্তানের নাম উচ্চারণ করতে ভয় বা নিষেধাজ্ঞা কিছু্ই নেই। কিন্তু বিজয় দিবস স্বাধীনতা দিবসে পাকিস্তান নয় ভারতই বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ!

একটু তিতা কথা বলে শুরু করি। ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্ট নিয়াজী টিক্কা খানদের কমান্ড তামিল করেই ৬৫ সালে জ্যাকব-মানকেশদের বিরুদ্ধে ফাইট করেছিলো। পাকিস্তান ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করাকে ইসলামের হয়ে যুদ্ধ করা মনে করে। কাফের বেদ্বিন হিন্দুদের বিরুদ্ধে জিহাদ মনে করে। সেই ৬৫ সালে ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্ট কি তাতে প্রভাবিত ছিলো না? জিয়াউর রহমান, জেনারেল ওসমানীদের ভারত বিরোধীতা ধর্মকেন্দ্রিক ছিলো না তার কোন শক্ত প্রমাণ আছে?

জেনারেল জ্যাকব জাতিসংঘের অধীনে যুদ্ধ বিরতি নিয়ে কথা বলতে নিয়াজীর ক্যাম্পে গিয়েছিলেন। যুদ্ধবিরতিতে বাংলাদেশ সম্মত না হলে আন্তর্জাতিকভাবে সন্ত্রাসী বিচ্ছিন্নতাবাদী হিসেবে মুক্তিবাহিনী চিহিৃত হত। আর যুদ্ধ বিরতি প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারকে কঠিন পরিস্থিতে ফেলে দিতো। বেশি না এক বছর এভাবে গড়ালেই কমিউনিস্ট ঘরনার মুক্তিযোদ্ধারা প্রবাসী সরকারের বিরুদ্ধে নানা রকম আপোষের অভিযোগ তুলে নিজেরা এককভাবে মুক্তিবাহিনী পরিচালনা করার ঘোষণা দিতো। মুক্তিবাহিনীর সেক্টর কমন্ডরদের মধ্যে দলাদলি, মোস্তাক গ্রুপ, আরো নানা রাজনীতির মত পথের লোকজন শত খন্ডে বিভক্ত হয়ে পড়ত যা বাঙালীর চরিত্র। জ্যাকব তার উপরস্থ কর্তাদের কাউকে না জানিয়ে আত্মসমর্পনের দলিল টাইপ করে নিয়াজীকে কৌশলে আত্মসমর্পনে রাজি করাতে সম্মত হয়। কোন সন্দেহ নেই আসল যুদ্ধটা ময়দানে করেছিলো মুক্তিবাহিনী। কিন্তু আধুনিককালের যুদ্ধ খালি ময়দানে হয় না। টেবিল চেয়ারে বসেই আসল যুদ্ধটা হয়। ইন্দিরা গান্ধি সেদিন প্রকৃতপক্ষে প্রবাসীর সকারের প্রধান হয়ে উঠেছিলেন। জ্যাকব, অররা, মানেকশ- তারা সকলেই মুক্তিযোদ্ধাদের অকুতভয়, সাহস আর দৃঢ়মনোবলের প্রশংসা করেছেন। পুরো ক্রেডিট তারা মুক্তিবাহিনীকেই দিয়েছিলেন। কিন্তু সেই ডিসেম্বরের ১৫ তারিখ কোন মুক্তিবাহিনীও ভাবেনি আগামীকাল স্বাধীন হতে চলেছে দেশ।

আমার কিন্তু বেশ লাগে, পাকিস্তান নয়, ভারতই বিজয় দিবসে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ!…

RELATED ARTICLES

২৬/১১-র মুম্বই হামলার ধাঁচেই নাশকতার ছক: দিল্লি, মুম্বাই, ইউপি তে সিরিয়াল বিস্ফোরণের ঘৃণ্য চক্রান্ত ব্যর্থ করল প্রশাসন!

২৬/১১-র মুম্বই হামলার ধাঁচেই নাশকতার ছক: দিল্লি, মুম্বাই, ইউপি তে সিরিয়াল বিস্ফোরণের ঘৃণ্য চক্রান্ত ব্যর্থ করল প্রশাসন! সবচেয়ে বড় কথা হল আইএসআইয়ের এই সম্পূর্ণ...

আশ্রয় দেওয়া দেশগুলোতে জিহাদ একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে ওঠছে।

শরণার্থী : আশ্রয় দেওয়া দেশগুলোতে ইসলামী মৌলবাদিদের জিহাদ একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে ওঠছে।নিউজিল্যান্ড ইসলামী জিহাদিদের ছুরি হামলা, হামলাকারী একজন শ্রীলংকান মুসলিম শরণার্থী। অন্য দিকে জার্মানিতে...

কেরালা ভারতে অশান্তির নীরব রাজধানী হয়ে উঠছে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে কেরালা পরবর্তী কাশ্মীর হয়ে যাবে।

কেরালা ভারতে অশান্তির নীরব রাজধানী হয়ে উঠছে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে কেরালা পরবর্তী কাশ্মীর হয়ে যাবে। কেরালার হিন্দুদের কাছ থেকে ভারতের অনেক কিছু শেখার আছে। কাশ্মীরি...

Most Popular

২৬/১১-র মুম্বই হামলার ধাঁচেই নাশকতার ছক: দিল্লি, মুম্বাই, ইউপি তে সিরিয়াল বিস্ফোরণের ঘৃণ্য চক্রান্ত ব্যর্থ করল প্রশাসন!

২৬/১১-র মুম্বই হামলার ধাঁচেই নাশকতার ছক: দিল্লি, মুম্বাই, ইউপি তে সিরিয়াল বিস্ফোরণের ঘৃণ্য চক্রান্ত ব্যর্থ করল প্রশাসন! সবচেয়ে বড় কথা হল আইএসআইয়ের এই সম্পূর্ণ...

আশ্রয় দেওয়া দেশগুলোতে জিহাদ একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে ওঠছে।

শরণার্থী : আশ্রয় দেওয়া দেশগুলোতে ইসলামী মৌলবাদিদের জিহাদ একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে ওঠছে।নিউজিল্যান্ড ইসলামী জিহাদিদের ছুরি হামলা, হামলাকারী একজন শ্রীলংকান মুসলিম শরণার্থী। অন্য দিকে জার্মানিতে...

কেরালা ভারতে অশান্তির নীরব রাজধানী হয়ে উঠছে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে কেরালা পরবর্তী কাশ্মীর হয়ে যাবে।

কেরালা ভারতে অশান্তির নীরব রাজধানী হয়ে উঠছে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে কেরালা পরবর্তী কাশ্মীর হয়ে যাবে। কেরালার হিন্দুদের কাছ থেকে ভারতের অনেক কিছু শেখার আছে। কাশ্মীরি...

মন্দির-মসজিদ সহাবস্থান যতগুলি ধর্মীয় সহিষ্ণুতার বিজ্ঞাপন দেখেন তার সবগুলিই মন্দির আগে প্রতিষ্ঠা হয়েছে তারপর মসজিদ।

মন্দির-মসজিদ সহাবস্থান যতগুলি ধর্মীয় সহিষ্ণুতার বিজ্ঞাপন দেখেন তার সবগুলিই মন্দির আগে প্রতিষ্ঠা হয়েছে তারপর মসজিদ। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের চট্টগ্রামে একজন মুসলিম যুবক চন্দ্রনাথ ধামে...

Recent Comments

%d bloggers like this: