সুপার সাইক্লোন আম্পান সৃষ্টি হতে যাচ্ছে সেটা মানুষ কয়েক হাজার কিলোমিটার দূরে বসে মেশিনপত্র টিপে সাপ্তাহ খানেক আগেই জেনে গিয়েছিল। অথচ আল্লা কুরআনে বলেছেন (সূরা নমল) বল, ‘আল্লাহ ব্যতীত আকাশমন্ডলী ও পৃথিবীতে কেউই অদৃশ্য বিষয়ের জ্ঞান রাখে না’।
আবহাওয়া অফিস এখন এক মাস আগেই বলে দেয় একটা ঝড় সৃষ্ট হতে পারে। এবছর মে মাসে প্রচুর ঝড় বৃষ্টি হতে পারে এটা মার্চ এপ্রিল মাসেই হাওয়া অফিস জানিয়ে দিয়েছিল। অথচ এরকম গায়েবের খবর নাকি একমাত্র আল্লাহই জানেন! 
হযরত আয়েশা (রাঃ) বলেছেন, যে ব্যক্তি এই ধারণা পোষণ করে যে, নবী (সাঃ) ভবিষ্যতে কি ঘটবে তা জানতেন, সে আল্লাহর প্রতি মিথ্যা আরোপ করে। কারণ, তিনি বলেন, “আল্লাহ ব্যতীত আকাশমন্ডলী ও পৃথিবীতে কেউই অদৃশ্য বিষয়ের জ্ঞান রাখে না।” (বুখারী ৪৮৫৫, মুসলিম ২৮৭, তিরমিযী ৩০৬৮নং) ।
নবীদের মাঝে মাঝে মহা প্যারায় পড়তে হত। যেমন কবে বৃষ্টি হবে, খরা কাটবে কবে এসব জিজ্ঞেস করে লোকজন তাদের পরীক্ষা নিতে চাইত। তখন এইসব আয়াত নাযিল হত। আবার জোতিষী বাটপারাগুলি গ্রহ নক্ষত্র দেখে ভবিষ্যৎ বলে দেবার যে দাবী করত সেটা বন্ধ না করলে নবীকে ছেড়ে লোকজন জোতিষীর কাছে ছুটবে এই।ভয় ছিলো। এসব কারণে বলা হয়েছে গায়েব বা অদৃশ্য শুধু আল্লাই জানেন। কিন্তু মানুষ এখন মোটামুটি এক বছরের আবহাওয়া কি ঘটতে পারে তা নির্ভুল বলে দিতে পারে! আল্লাহ কিন্তু আমাদের আম্পান সাইক্লোনের খবর জানিয়ে সতর্ক করেনি। করেছে বিজ্ঞানের আবিষ্কার হাওয়া অফিস!