বাঙালি মুসলমানের শেঁকড়ের খোঁজে:
—————————————-
আজকের বাংলাদেশের রাজশাহীর একটাকিয়া রাজাদের চলনবিল এলাকায় সপ্তদূর্গা বা সাতপাড়ায় রাজধানী ছিল। এরা বছরে একবার অন্তত গৌড় বা দিল্লীর বাদশাহর কাছে তাদের নতি স্বীকার করতে বাধ্য ছিল । এই নিয়ম অনুসারে রাজা মদন নারায়ন নিজের দুই ছেলে কন্দর্প নারায়ন ও কামদের নারায়নকে সঙ্গে নিয়ে গৌড়ের বাদশাহ (নবীজীর বংশধর নাকি!) সৈয়দ হোসেন শাহ-র কাছে গেলেন। হোসেন শাহ-র চার স্ত্রীর গর্ভে বহু কন্যা সন্তান জন্মেছিল । দুজনের বয়স আবার ২০র উপর । যোগ্য পাত্রের অভাবে সেই দুজনের বিয়ে হচ্ছিল না । পাত্র হিসেবে সৈয়দ বংশের কন্যাদের জন্য নিন্মশ্রেনী থেকে ধর্মান্তরিত মুসলমান চলবে না ! হোসেন শাহ দেখল মদনের দুই ছেলে সুন্দর, বিদ্বান , বুদ্ধিমান এবং যুবক। কুলীন ব্রাম্মন সাথে রাজপুত্রও। সব দিক থেকেই তার দুই মেয়ের যোগ্য পাত্র। ওমনি মদনকে স্বপুত্রক ক্যাচ কট কট !! তারপর মেয়েদের বিয়ের প্রস্তাব দিল । মদনের তো কঠিন অবস্থা ! বললেন: ‘ধর্মাবতার, আপনি আমাদের রাজা এবং রক্ষক, আমি অনুগত চাকর মাত্র। আমার প্রতি অত্যাচার করা আপনার মত মানীকে মানায় না !
হোসেন শাহ চালু চীজ ! বলল: ‘আমি একটাকিয়ার রাজবংশকে ভীষণ ভালবাসি । আমার মেয়েরা সৈয়দ বংশের বাইরে কোন মুসলিম বিয়ে করতে পারে না। আপনাদের অত্যন্ত সম্ভ্রান্ত জেনেই আপনার দুই ছেলের সাথে আমি আমার দুই মেয়ের বিয়ে দিতে চাই । আপনার ছেলেদের মুসলমান হতে বলছিনা বরং আমার মেয়েরাই স্বামীর ধর্ম পালন করবে নয়তো আপনার ছেলেরা ইসলামে ধর্মান্তরিত হবে। দুটোর মধ্যে একটা মানুন নাহলে আমি জোর করতে বাধ্য হবো।মদন বাদশাহর প্রস্তাবের ছলনা বুঝতে পারলেন এবং বুঝলেন যে প্রস্তাব না মানলে বহু লোকের প্রাণনাশ ও জাতি নাশ হবে। অগত্যা তার দুই ছেলে মুসলমান হলো আর শাহজাদীদ্বয়কে বিয়ে করলো । এরপর একে একে মদনের অন্য ছেলেদের ও ভাইয়ের ছেলেদের মিলে আরো এগারো জনকে মুসলমান বানানো হলো এবং তাদের সঙ্গে বাদশাহর অবশিষ্ট মেয়েদের বিয়ে দেওয়া হলো। মদন চার নম্বর ছেলে রতিকান্তেরচোখে কম দেখত, রাতে একেবারেই দেখতে পেতোনা। বাদশাহ কেবল তাকে ছেড়ে দিল। বাদশাহ রসিকতা করে মদনকে বললো: ‘বুঝেছেন, যে অন্ধ সে হিন্দুই থাকুক !’
একটাকিয়ার রাজ পরিবার থেকে ২৯ জন রাজ কুমারকে মুসলমান করা হয়েছিল। সম্রাট আকবর একটাকিয়ার রাজকুমার চন্দ্র নারায়ন এবং গায়ক বিখ্যাত কাশ্মিরী পন্ডিত তানসেনের সাথে দুই মেয়ের বিয়ে দিয়েছিল। কন্দর্প নারায়নের -২৩ তম বংশধর নূসরাত জাহান আয়েশা সিদ্দিকা (জয়শ্রী আচার্য) !! যে সকল বাঙালি মুসলমান ইসলামের জয় পতাকা উড়িয়ে বেড়ান তারা জানুন তাদের পূর্ব পুরুষরা পূর্ব পুরুষ কোন পরিস্থিতিতে মুসলমান হতে বাধ্য হয়েছিলেন।
রেফ : https://drive.google.com/…/0Bw59VpORbQaaeVlVNU1FRnJXUTA/view