পাকিস্থানের স্বাধীনতা দিবসের মিথ্যাচারের উপর কিঞ্চিত বার্তালাপ

কোনো পাক প্যারু মমিন বা আওলাদে মারখোর আসে নি তবে এই অন্তর্জালের বন্ধুরা এর উপর বিস্তারিত প্রশ্ন করছেন । ভেবে দেখলাম এই লেখাকে একটু বর্ধিত করি তবে একটানে ফেসবুকেই লিখছি তাই বানান বা অন্য ত্রুটি মার্জনীয়।

আসুন একটু পাকিস্থানের নিজের লোকেদের থেকেই জানি কারন আমরা যদি আবার স্বচ্ছ এবং আন্তর্জাতিক কোনো ইতিহাস না দিই তাই।প্রথমেই আসুন দেখি পাকিস্থানি ঐতিহাসিক এবং লেখক কে.কে.আজিজ তার মার্ডার অফ হিস্ট্রিতে কি বলছেন : তিনি বলছেন,ব্রিটিশ পার্লামেন্ট জুলাই এর ৪ তারিখ The Indian Independence Bill পেশ করে এবং তা আইন হয় ১৫ই জুলাই।এটি কি বলছে?বলছে এই দুই দেশ স্বাধীন হবে ১৪ এবং ১৫ই অগাস্ট এর মধ্যরাত থেকে।
এই ক্ষমতাহস্তান্তর করার মূল ব্যক্তিটি হলো ব্রিটিশ ভাইসরয় মাউন্টব্যাটেন যাকে এই কাজটি একাই করতে হয়।এখন এ তো আর একই সঙ্গে দুই জায়গায় উপস্থিত থাকতে পারে না,তাই তাকে ১৪ তারিখ আনুষ্ঠানিকতা সেরে আবার ১৫তারিখ ভারতের দযিত্ব নিতে হয়েছিল।মানে আমরা তাকে বেশি ভালোবেসে কাছে রেখেছিলাম যে!এরপর লোকটি ভারতের গভর্নরজেনারেল হয়েছিল সুতরাং বুঝতেই পারছেন।তাই এই কাজ তাকে করতে হয়েছিল কিন্তু মমিন বা আলোকপ্রাপ্ত পাকি প্যারু মানুষরা একটু ধীরে,আনুষ্ঠানিকতা করলেই ১৪ তারিখ ক্ষমতা মানে স্বাধীনতা পাওয়া হয় না কারন ইন্ডিয়ান ইন্ডিপেনডেন্স এক্ট,১৯৪৭ সূত্র : http://www.legislation.gov.uk/ukpga/1947/30/pdfs/ukpga_19470030_en.pdf এর আর্টিকেল ১ এর নিউ ডমিনিঅন বলছে “”As from the fifteenth day of August, nineteen hundred and forty-seven, two independent Dominions shall be set up in India, to be known respectively as India and Pakistan.”
কি বলছেন?এইসব নাসারা ইহুদি এবং আমাদের ভারতীয় ষড়যন্ত্র?তাহলে দেখি,পূর্বতন প্রধান মন্ত্রী(পাকিস্থান),চৌধুরী মহম্মদ আলী তার ইমার্জেন্স অফ পাকিস্তান বলে একটি প্রায় আত্বজীবনী মূলক বই তে কি বলছেন, উনি বলছেন,১৫ই অগাস্ট,১৯৪৭ এ ছিল রামাদান মাসের শেষ শুক্রবার এবং ইসলামের পবিত্রতম দিন।এই পবিত্রদিনে জিন্নাহ এবং তার মন্ত্রিসভা শপথ নিয়েছিল,চাঁদ-তারা খচিত পতাকা সম্বলিত পাকিস্থান পৃথিবীর মানচিত্রে জায়গা করে নিয়েছিল ঐদিনে।
ইয়ে,ওই লোকটি মিথ্যাবাদী হতে পারে! তাহলে একটু জিন্নাহ কে তুলে ধরি? ১৫ই অগাস্ট,১৯৪৭ পাকিস্থান রেডিওর সূচনা হয় এবং তাতে জিন্নাহ জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে বলছে,সে অত্যন্ত আনন্দের সাথে এই উদঘাটন করে সবাইকে ১৫ই অগাস্টের এই স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানাচ্ছে, একটু ওটার ইংরেজি ও তুলে ধরছি নিচে :
“’It is with feelings of greatest happiness and emotion that I send you my greetings. August 15 is the birth day of the independent and sovereign state of Pakistan.'”

একটু আরো তথ্যসূত্র চাই? এই যে, দিচ্ছি,মনে রাখবেন,ওটা মিলিয়েছি সম্পৃক্ত অন্য সূত্র থেকেও তবু যদি দাবি করেন,নিচে আরো কিছু দিয়ে দেবো: https://www.dawn.com/news/1125484
আরো আছে,মাউন্টব্যাটেন এর জীবনী লেখক,ফিলিপ জিগলার এই সরকারী স্বীকৃত আত্বজীবনীতে এই তারিখকে ১৫ই অগাস্টই বলছে।
তবে,পাকিস্থানের শিক্ষাঙ্গনে ওই তারিখ পরিবর্তিত যে ভাবে ইতিহাস শুরু করেছে মহম্মদ বিন কাশিম এর পর থেকে ঠিক ঐভাবেই এই আত্ববিস্মৃত দেশ তার অধপতনের সূচনা করেছে নিজেদের স্বাধীনতার তারিখের মিথ্যাচারের থেকেই!
সবাইকে আমাদের ভারতের স্বাধীনতা দিবসের আগাম শুভেচ্ছা জানাই ।
আমাদের যেতে হবে অনেক দুরে তাই মতান্তর রেখে মনান্তর ভুলে আসুন একটু বলি, সত্যের জয় হোক!
জয় হিন্দ! বন্দে মাতরম !

আরো একটি তথ্যসূত্র,চাইলে ভরিয়ে দেবো ,খালি একটু ভুল দাবি করুন ! https://www.dawn.com/news/742147