#লাভ জিহাদ কি ?

#লাভ জিহাদ হচ্ছে হিন্দু মেয়ে হয়ে অন্য অহিন্দু ছেলের সাথে প্রেম করা , অথবা হিন্দু ছেলে হয়ে অন্য অহিন্দু মেয়ের সাথে প্রেম করা , শেষে প্রেম করে নিজের ধর্ম পরিত্যাগ করে ধর্মান্তরিত হওয়াকে লাভ জিহাদ বলে।

#লাভ জিহাদ এবং হিন্দু বোনদের জন্য সতর্কবার্তাঃ

#অতি স¤প্রতি সিলেটের একটি ঘটনা দেশের ছোট বড় প্রায় সবকটি পত্র পত্রিকায় নিউজ হিসেবে ছাপিয়েছে। নিউজটি হল একজন সিলেটের ডাক্তার তার স্ত্রীকে তালাবদ্ধ অবস্থায় বন্দি করে হজ পালন করতে সৌদি আরব গেছেন।
বলা বাহুল্য, তালাবদ্ধ অবস্থায় বন্দিনী স্ত্রীলোকটি এককালে হিন্দু ছিলেন এবং তিনিও পেশায় ডাক্তার। লাভ জিহাদীদের খপ্পরে পড়ে নিজ পিতৃ ধর্ম পরিত্যাগ ও ভালবাসার টানে অতি আশা করে মুসলিম ডাক্তারের ঘরণী হয়েছে, আর এর চরম মূল্য কি করে দিচ্ছেন, তা আমরা সকলে পত্র পত্রিকা খুললেই দেখা যায়।

#এটা কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়, এটি বহু পুরাতন ও ধারাবাহিক ঘটনার একটি মাত্র। প্রায় প্রত্যেকটি ধর্মান্তরিত বিয়ের পর ধর্মান্তরিত মেয়েদের ক্ষেত্রে এমনই হয়। কারণ মূল কারণ হলো যে ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়েটা করলেন, ঐ ধর্ম দর্শনে একজন পূরুষের ৪ এর অনধিক বিয়ে করার অধিকার এবং ভাল না লাগলে দেন মোহরের টাকা দিয়ে বিদেয় করার বিধান সংরক্ষিত করা আছে। হিন্দু মেয়েদের ধর্মান্তরিত হয়ে বিবাহ ও পরবর্তী পরিনতি হল স্বামীহারা হয়ে আবার অন্যে ব্যাক্তিকে স্বামী হিসেবে গ্রহন করা, নয়তো অন্যের বাড়ীতে ঝিগিরী করা, নয়তো শেষে পতিতালয়ে গমন করে যৌনদাসী হওয়া।

#কিন্তু এই মেয়েটি সনাতনের ছায়াতলে স্বাধীন মুক্তপাখি ছিল।

#এইভাবে ফাঁদে ফেলে জিহাদিরা মেয়েটাকে প্রথমে নাস্তিক বানায় তারপর বিয়ে করবে তারপর ধর্মান্তরিত করে তারপর ওদের কাজ শেষ । গাছের ফুল ঘ্রাণ নেওয়ার পর ওটাকে ফেলে দেওয়া ছাড়া কোন কাজ থাকে না।

#জিহাদের জন্ম সূরা নিসা আয়াত ৩ – #তোমরা মহিলাদের মধ্যে থেকে তোমাদের পছন্দনুযায়ী দুই-দুই , তিন- তিন , চার- চার জনকে বিয়ে করে নাও।

#তাহলে শিকারের ফাঁদ পাততে অসুবিধা কোথায় ?

জিহাদিরা মালাউন মহিলাদের উপর কু-নজর বেশি কারণ – সূরা নিসা আয়াত -২৪ #বিবাহিত পরস্ত্রী তোমাদের কাছে নিষিদ্ধ যে সব বিবাহিত অমুসলিমদের তোমরা জিহাদে ধরে এনেছো তারা তোমাদের জন্য বৈধ । গণিমতের মাল হিসাবে তাদের ভোগ করা যায়।

#সনাতনধর্মের অনেক নারীরা মৌলবাদিদের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন সাবধান হয়ে যান ।

#মডেল তারকা শ্রাবস্তি দত্ত তিন্নি – ভালোবেসে বিয়ে করেছিল আরেক মডেল হিল্লোলকে দেড় বছর সংসার করেছেন একটা মেয়ে সন্তানও হয়েছে পরে বাইন তালাক। তারপর তিন্নির ঠিকানা হয়েছে মাদক নিরাময় কেন্দ্রে এখন মায়ের বাসায় থাকেন কিন্তু সুস্হ স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেনি ।

#এখন এইসব জিহাদি আরেক নামিদামী মডেলকে ফাঁদে ফেলে বিয়ে করে , সংসার করে । কিছু দিন পর হয়তো নতুন কাউকে ধরবে। যেমন , বেশ্যালয়ের একেক দিন একেক ঘরে গমন করে খরিদ্দার।

#দৈনিক কালের কন্ঠ প্রকাশিত ২৪ সেপ্টম্বর ২০১৩ ধামরাইয়ে শ্বশুর বাড়িতে নির্যাতিত হয়ে উলঙ্গ অবস্হায় অন্য বাড়িতে আশ্রয় নেয় ধর্মান্তরিত হিন্দু মেয়ে সাগরিকা সূত্রধর । সে এখন তালাক প্রাপ্ত । হয়তো এখন কোন আবাসিক হোটেলে প্রতিতা বৃত্তিতে আছেন।

#যারা ভিক্ষা, ঝিগিরী বা পতিতালয়ে যেতে পারে নি এমন অনেক মেয়ে আছে যারা লাভ জিহাদের স্বীকার হয়ে , পারছে না মরতে পারছে না জন্ম দেওয়া মা বাবার কাছে মুখ দেখাতে । রাতে চোখের জ্বলে বালিশ ভিজালেও দেখার কেউ নাই ।

#এইসব দিদিদের জানা উচিত ভালোবেসে ঘর করা যায় তবে মা বাবার আশীর্বাদ ছাড়া অল্পদিনও সুখে শান্তিতে ঘর করতে পারে না ।

#তাই লাভ জিহাদিদের সাথে প্রেম করার চিন্তা বাদ দিয়ে নিজে সতর্ক হোন অন্যকে সতর্ক করুন।

#শ্রীমদ্ভগবদ্গীতার জ্ঞান যার মধ্যে আছে বা মা-বার কাছ থেকে জেনেছেন তারা কখনও লাভ জিহাদের খপ্পরে পরে না বরং তাদের দিকে থুঃ থুঃ ছুড়ে মারেন।

#গীতায় ভগবান শ্রীকৃষ্ণ বলেছেন,
”স্বধর্ম নিধনং শ্রেয়ঃ” অর্থাৎ নিজের ধর্ম নিকৃষ্ট হলেও তা শ্রেষ্ঠ।
”পরঃধর্ম ভয়াবহ” অর্থাৎ অন্যের ধর্ম পালন মারাত্মক অপরাধ।। হরেকৃষ্ণ।।