ভারত দাঙ্গাবাজ দেশ।

Spread the love

মুসলিমরা আসলেই খুব খারাপ দাদা।দেখুন না আরব আমিরাত,কাতার,কুয়েত,ওমান,বাহরাইন এসব ইসলামিক দেশে হিন্দু জনসংখ্যা  ৫-১০%।কিন্তু সেখানে গুজরাটের মতো কোন দাঙ্গা হয় না।হয় না বাবরী মসজিদের মতো কোন মন্দির কে ভেঙ্গে ফেলা।সেখানে হিন্দুরা কি খাচ্ছে তা নিয়ে তারা মাথাও ঘামাচ্ছে না,পিটুনিও দিচ্ছে না।আর ভারতবর্ষ!এটা তো অঢেল সম্প্রীতির দেশ।তাইতো এখানে  গুজরাট দাঙ্গা,বাবরী মসজিদ ভাঙ্গার মতো সম্প্রীতি মূলক নানা কাজ কর্ম হয়।এই মহান সম্প্রীতির দেশে ঘর-বাড়ির বাইরে টুলেট দেয়া থাকে “মুসলিমদের ভাড়া দেওয়া হবে না”।আহা কি সম্প্রীতির জাতি হিন্দু জাতি!

এক মুসলিম এর এই প্রশ্নের উত্তর

ভারতে দাঙ্গা হয় একদম ঠিক । কিন্তু দাঙ্গা তো দু তরফে হয়, মুসলিম প্রধান ইসলামিক দেশে দাঙ্গা হয় না, হয় একতরফা হিন্দুদের এথনিক ক্লিনজিং । বলতাম, খাঁটি ইসলামিক রাষ্ট্র সৌদীতে মন্দির ভাঙবে কোত্থেকে, সেখানে তো কোন মন্দিরই নেই, অমুসলিমদের ন্যূনতম ধর্মীয় এবং নাগরিক অধিকার পর্যন্ত নেই, ভোটাধিকার পর্যন্ত নেই । অমুসলিমদের ধর্মাচরণ কঠোর ভাবে নিষিদ্ধ । এমনকি মক্কা শহরে অমুসলিমদের প্রবেশাধিকার পর্যন্ত নেই। কিন্তু বলব না, এ একটা ছুপা ছাগু, একটা বোঁটকা গন্ধ টের পাচ্ছেন না! এর যুক্তিবোধ মাদ্রাসার অশিক্ষিত হুজুরের পায়ের তলায় বন্ধক দেওয়া আছে ।

চুড়ান্ত স্বার্থপর সুবিধাবাদী একটা সম্প্রদায়, নিজেরা যেখানে সংখ্যাগুরু, সেই রাষ্ট্র গুলিকে ইসলামিক রাষ্ট্র বানিয়ে রাখবে, অমুসলিমদের ন্যূনতম ধর্মীয় এবং নাগরিক অধিকার পর্যন্ত দেবে না ।অথচ এই এরাই যেখানে সংখ্যায় একটু কম, সেই অমুসলিম প্রধান ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র গুলিতে গাইবে ধর্ম নিরপেক্ষতার জয়গান । সভ্য মানুষের উচিত অসভ্য বর্বরদের সঙ্গে ঠিক সেই আচরণ করা, এরা অন্যদের সঙ্গে যে আচরণটা করে থাকে ।

আসলে ধর্মের মোড়কে প্রবর্তিত এক সর্বনাশা ভয়ঙ্কর সাম্রাজ্যবাদী রাজনৈতিক মতাদর্শের প্রভাবে দুই হাত পা ওয়ালা অবিকল মানুষের মত দেখতে কতগুলি জন্তুর সৃষ্টি হয়েছে । মানব সভ্যতার স্বার্থে এদের নির্মূল জরুরী।