হত ভাগা বাঙালি হিন্দুরা এরা এদের কাউকে পিটিয়ে মেরেছে জেহাদিরা,আবার হিন্দু মেয়েদের  ধর্ষণ করেছে,সবই এই রাজ্যর ঘটনা এগুলো। অথচ এঁদের এই ভাবে নির্মম ভাবে করার পরে এঁদের পরিবারের পাশে থাকার বার্তা নিয়ে এই শহরের রাজ পথে কোন মিছিল হয় না, দলদাস ওই মেরুদন্ডহীন রাজনৈতিক দলের পা চাটা অভিনেতা ও বুদ্ধিজীবীরা চুপ থাকে,এঁদের জন্য কোন বিপ্লবী গায়ক কণ্ঠ ছেড়ে গান রচনা করে গান গায়না কোন কবি কবিতা লেখেনা।
আর্থিক সাহায্য থেকে সরকারি চাকরি পায়না এঁদের পরিবারের সদস্যরা।কিন্তু কেন এই ভাবে আর কত দিন বঞ্চিত থাকতে হবে ? প্রশাসন থেকে রাজনৈতিক দলের নেতার কেন এঁদের পরিবারের পাশে দাঁড়ায় না। কেন রাজ্যর  DG এদের খুনিদের ধরতে তত্পর হয় না কিসের চাপে কাদের চাপে?   
এই কদিন আগে  শেষ হয়ে গেল একটি নিষ্পাপ প্রান,জেহাদি হাফিজুলের লালসার শিকার হয়ে। বীরভুমের পূজা( অনিমা) রংমিস্ত্রি হাফিজুলের কাছে বারবার অনিচ্ছাকৃত ধর্ষিত হয়ে নিজেকে শেষ করে দিল দগ্ধ হয়ে।। গতকাল ই তার মৃত্যু হয়। অথচ আমরা জানতেই পারলাম না।  শিপ্রা,পুজা,সোমা,কার্তিক,রোহিত,ইন্দ্রজিৎ,তোতোন, হেমন্ত এদের মৃত্যু কে প্রতিহত করতে ?এরকম হিন্দু বাঙালি  যুবক যুবতী আছে যাদের ছবি সংগ্রহে নেই জানিনা এদের খুনি ওই জেহাদিরা শাস্তি পাবে কি না।
রাজ্য প্রশাসনের কাছে অনুরোধ আপনারা নিরপেক্ষ হন এবং এদের খুনিদের সাজা দিন। বঙ্গীয় বুদ্ধিজীবীদের কাছে অনুরোধ আপনারা নিরপেক্ষ হন।
কোন বিশেষসংখ্যলঘু সম্প্রদায়কে ভোটের জন্য তোষণ করা বন্ধ করুন।