Thursday, July 29, 2021
Home Bangla Blog আসলে ভারতের রাজনীতিতে এই সব গুরুদের সামনে সব রাজনৈতিক দলই অসহায়। 

আসলে ভারতের রাজনীতিতে এই সব গুরুদের সামনে সব রাজনৈতিক দলই অসহায়। 

গুরু হইতে গোলমাল, ভারতে নতুন কিছু নহে। বাবা বালক ব্রহ্মচারীর মৃত্যুর পরেও, তার মৃতদেশ সৎকারের সাহস পায় নি বাংলার “কমিনিউস্ট” সরকার। অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে কয়েক সপ্তাহ বাদে সুভাষ চক্কোতি, বালক ব্রহ্মচারীর দেহ বার করতে সমর্থ হোন। সেখানে বিজেপির মতন পার্টি যাদের ভোটারবেসের অনেকটাই এই ধরনের মূর্খ ভক্তের দল, তারা বাবা রাম রহিমের ডেরায় সৈন্য ঢোকাতে পেরেছেন, সেটাই অনেক।

আসলে ভারতের রাজনীতিতে এই সব গুরুদের সামনে সব রাজনৈতিক দলই অসহায়।  আমি এমন কোন নেতা বা পার্টি জানি না, যারা ধর্মীয় নেতাদের নিজেদের দলে টানার চেষ্টা করে না।  এই ক্ষেত্রে আমি সাধু, তুমি চোর এই ধরনের ভাবের ঘরে চুরি করে লাভ নেই। 

বরং এটা ভাবার সময় এসেছে কেন ভারতীয়রা গুরুর ওপর এত নির্ভরশীল। কেন নিজেদের ওপর ভরসা এদের নেই।

দীর্ঘদিনের একটা সাংস্কৃতিক প্রভাব আছেই। কিন্ত একবিংশ শতাব্দিতে বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তি যখন এতটা এগিয়েছে-তখনো কেন মানুষ গুরুর সন্ধান করবে সেটা আমার কাছে পরিস্কার না।

যদি ধরেই নিই অনুকরনযোগ্য একজনকে সামনে পেলে, জীবনে অনুপ্রেরনা আসে-সেক্ষেত্রে আমার মতে অনেককেই পাবেন, যারা নীরবে কাজ করে চলেছে ঢাকঢোল না পিটিতেই। তাদের অনুসরন করুন।  সৎ পথে পরিশ্রম করে যারা মানুষের জন্য কিছু করে, ভারতে তাদের কদর নেই- কদর তাদের যারা  ভণ্ড রাজনৈতিক বিদদের নিজেদের ঢাকঢোল পেটাবে-জনগনের মাথায় কাঁঠাল ভেঙে খাবে-আর রাজনৈতিক নেতাদের সাথে কাঁধ ঘেঁসে, তাদের ভোট এনে দেবে। বাংলার ক্ষেত্রে দেখুন। প্রাত্তন ডিসি নজরুল বা আল আমিন মিশনের প্রতিষ্ঠাতা নুরুল ইসলাম, যারা নীরবে মুসলমান সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করেছেন, তাদের কোন কদর নেই কোন রাজনৈতিক দলের কাছেই। যারা মিথ্যে প্রতিশ্রুতি, ধর্মীর পরিচয়ের সুরসুরি-তার সাথে ভেক ধরতে পেরেছে, তারাই নাকি মুসলমানদের নেতা।   হিন্দুদের মধ্যেও তাই।  আমি একজন আই আই টি প্রাত্তনীকে চিনি, যিনি জঙ্গল মহলে মহিলাদের জন্য “স্কিল মিশনঃ” খুলে তাদের তাদের স্বনির্ভর করার কাজে ব্যস্ত। তার আই আই টি, আই আই এম ডিগ্রি ছুড়ে ফেলে। এদের কেউ সন্মান দেয় না। এরা অনুকরনযোগ্য না-কারন এদের গায়ে রাজনৈতি শক্তি নেই। এরা মানুষকে ধনী হওয়ার লোভ দেখায় না।

রোগ অনেক গভীরে। সাধারন মানুষ একে লোভী, তার ওপরে পেটে বিদ্যা নেই, মাথায় বুদ্ধি নেই। ফলে চিট ফান্ড থেকে গুরুদেব -প্যাটার্ন একটাই-যে মাথায় হাত বুলিয়ে এই অজ্ঞ জনগনের লোভে ঘি ঢালতে পারবে, সেই কামাবে।

তবু সরকাকে ধন্যবাদ জানাব, যে কং সরকারে মতন তুষমতি না করে এর বিচার করার জন্য। জানি সরকারে উপর এর প্রভাব পড়বে। তবু কাজ করুন এটা পিছনেই আমাদের নতুন ভারতে সূর্য হুকি মারছে। ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রী  আপনাকে। আপনি নীতি জন্য আমাদের গর্ভের হয়ে থাকবে সারাজীবন। 

RELATED ARTICLES

আফগানিস্তান: আমেরিকা চিরকাল আফগানদের পাহারা দিবে কেন?

আফগানিস্তান: আমেরিকা চিরকাল আফগানদের পাহারা দিবে কেন? আমেরিকা কি আফগানদের বিপদে ফেলে চলে গেছে? 8 ই মে আফগানিস্তানের একটি স্কুলের বাইরে বোমা বিস্ফোরণের পরেও...

বৈদিক সভ্যতা! মানব সভ্যতার অহংকার।

বৈদিক সভ্যতা! মানব সভ্যতার অহংকার। আজকের দিনে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া হিন্দু তরুন তরুনীরা তাদের নিজ ধর্ম, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির বিষয়ে আলোচনা করার ক্ষেত্রে চরম...

সতীদাহ কি হিন্দু ধর্মের প্রথা, বাল্য বিবাহ ও রাত্রীকালীন বিবাহের উৎপত্তির কারণ কি?

সতীদাহ কি হিন্দু ধর্মের প্রথা ? এবং বাল্য বিবাহ ও রাত্রীকালীন বিবাহের উৎপত্তির কারণ কি? ধর্মীয় বিষয় নিয়ে চুলকানো মুসলমানদের স্বভাব| এই চুলকাতে গিয়ে মুসলমানরা নানা...

Most Popular

বৈদিক সভ্যতা! মানব সভ্যতার অহংকার।

বৈদিক সভ্যতা! মানব সভ্যতার অহংকার। আজকের দিনে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া হিন্দু তরুন তরুনীরা তাদের নিজ ধর্ম, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির বিষয়ে আলোচনা করার ক্ষেত্রে চরম...

বেদে স্পষ্ট করে গো হত্যা নিষেধ আছে-দুর্মর

বেদে স্পষ্ট করে গো হত্যা নিষেধ আছে। অপপ্রচার এর জবাব গো হত্যা এরজবাব। অনেক বিধর্মী এবং অপপ্রচার কারী রা বেদে গো হত্যা এর কথা...

পুষ্যমিত্র শুঙ্গ: ভারতে বৈদিক ধর্মের পুনঃপ্রতিষ্ঠাতা। বৌদ্ধধর্মের শাসন সমাপ্তি করেছিল মৌর্য সাম্রাজ্যের সাথে!

পুষ্যমিত্র শুঙ্গ: ভারতে বৈদিক ধর্মের পুনঃপ্রতিষ্ঠাতা। বৌদ্ধধর্মের শাসন সমাপ্তি করেছিল মৌর্য সাম্রাজ্যের সাথে! ভারতবর্ষে অনেক মহান রাজা রয়েছেন। হিন্দু ধর্ম গ্রন্থ এবং ঐতিহাসিক সাহিত্য...

অনাদি হিন্দু জাতি কী? হিন্দু জতি সুদূর অতীত থেকেই অস্তিত্বশীল, কখনও কৃত্রিম সত্তা ছিল না।

অনাদি হিন্দু জাতি কী? হিন্দু জতি সুদূর অতীত থেকেই অস্তিত্বশীল, কখনও কৃত্রিম সত্তা ছিল না। আজকাল হিন্দু ও জাতীয়তাবাদের মতো শব্দগুলি শোনা যাচ্ছে এবং...

ভারতীয় সভ্যতার এমন শক্তি আছে যা ভােগবাদী দুনিয়াকে সঠিক পথের সন্ধান দিতে পারে।

ভারতীয় সভ্যতার এমন শক্তি আছে যা ভােগবাদী দুনিয়াকে সঠিক পথের সন্ধান দিতে পারে। প্রথমদিকে নানাভাবে অতিরিক্ত চাহিদা নিয়ন্ত্রণে বাধ্য করতে হবে। প্রয়ােজনে শক্তি প্রয়ােগ...

আমাদের সুপ্রাচীন সভ্যতার গৌরবময় মহান ঐতিহ্য জানতে হবে, সময় এসেছে ভুল সংশােধনের।

সুপ্রাচীন সভ্যতা: আমাদের সুপ্রাচীন সভ্যতার গৌরবময় মহান ঐতিহ্য জানতে হবে, সময় এসেছে ভুল সংশােধনের। যে কেউ খোলা চোখে তাকালে আধুনিক বিশ্বের চতুর্দিকে নানা ধরনের পরস্পর...

আর্যরা বহিরাগত নয়: আর্য দ্রাবিড় এক জনজাতি, ‘আর্যরা বহিরাগত’ এই তত্ত্বের উদ্ভাবনের কারণ কি?

আর্যরা বহিরাগত নয়: আর্য দ্রাবিড় এক জনজাতি, 'আর্যরা বহিরাগত' এই তত্ত্বের উদ্ভাবনের কারণ? আর্যরা বহিরাগত নয়: আর্য দ্রাবিড় এক জনজাতি, "আর্যরা বহিরাগত আক্রমণকারী- একটি...
%d bloggers like this: