হিন্দু ধর্মে দীক্ষিত

মুসলিম মেয়েরা কি হিন্দু ধর্মে দীক্ষিত হওয়ার পর অনুশোচনা করে যেমন অনেক হিন্দু মেয়েরা আফসোস করে এবং ভালোবাসার জন্য ইসলাম গ্রহণ করার পর কষ্ট পায়?

Spread the love

মুসলিম মেয়েরা কি হিন্দু ধর্মে দীক্ষিত হওয়ার পর অনুশোচনা করে যেমন অনেক হিন্দু মেয়েরা আফসোস করে এবং ভালোবাসার জন্য ইসলাম গ্রহণ করার পর কষ্ট পায়? মুসলিম মহিলারা কি হিন্দু পুরুষদের বিয়ে করতে আগ্রহী?

আয়শা ঘোষ,কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে দর্শনশাস্ত্রে মাস্টার্স অফ আর্টস পড়েছেন। মূললেখাটি ইংরেজি থেকে বাংলায় অনুবাদ করা  ।

আমি একজন মুসলিম মহিলা, আমি একজন হিন্দু পুরুষকে বিয়ে করেছি। তাই আমি আমার ব্যক্তিগত মতামত এবং অভিজ্ঞতা থেকে কথা বলছি। আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতায়, আমি হ্যাঁ বলব। অধিকাংশই মুসলিম নারী আগ্রহী থাকে কোন হিন্দু ছেলের সাথে কিছু না হোক অন্তত বন্ধুত্ব করার, তবে মাত্র কয়েকজনই প্রকৃতপক্ষে পদক্ষেপ নিতে পারে।

মুসলিম মহিলাদের হিন্দু পুরুষদের আকর্ষণীয় মনে করার একাধিক কারণ রয়েছে:

সবচেয়ে সাধারণ কারণ হল এমন কিছু চাওয়ার রোমাঞ্চ যা আপনার জন্য নিষিদ্ধ। মুসলিম মহিলাদের অমুসলিমকে বিয়ে করতে নিষেধ করা হয়েছে যদি না সেও ইসলাম গ্রহণ করে। তাই নিষিদ্ধ ফলের প্রতি এর আকর্ষণ একটুই বেশিই থাকে, তাই বলতে গেলে, এটি অমুসলিম পুরুষদের আমাদের কাছে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণ করে। তেমনি একটি লোকটির প্রতি আমার আকৃষ্ট হওয়ার অন্যতম কারণ ছিল, যিনি পরবর্তীতে আমার স্বামী হয়েছেন।

হিন্দু ছেলের সাধারণত শান্ত প্রকৃতির হয়ে থাকে, যা মেয়েদেরকে আকর্ষণ করে।  শৈশব থেকেই মুসলিম পুরুষদের উপর নিপীড়নের অনুভূতি জাগে, যা তাদের আচরণের একটি অপ্রয়োজনীয় আক্রমণাত্মক দিক বের করে আনে, যা অনেক মহিলাই পছন্দ করে না।

নারীরা এমন ছেলেদের পছন্দ করে যারা শান্ত, বন্ধুত্বপূর্ণ এবং বিনা কারণে নিজেদেরকে আক্রমণাত্মক এবং আধিপত্যবাদী হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টা করে না। আমি অনেক মুসলিম মহিলাকে জানি যারা এটিকে ‘বিরক্তিকর’ বলে মনে করেন, একটি ভাল শব্দের অভাবে। হিন্দু পুরুষদের পছন্দ করি কারণ তারা কোন নিপীড়ন কমপ্লেক্সের সাথে বাস করে না, তাদের সাথে কথা বলা সহজ এবং বন্ধুত্বপূর্ণ।

বেশির ভাগ মুসলিম মহিলা এই ধরনে বিরক্তিকর অভিজ্ঞতা মাঝে দিযে যায়, এমন কি সে এই বিরক্তিকর অভিজ্ঞতা থেকে বের হতেও চাই। হিন্দু (অথবা অন্য কোন অমুসলিম) কে বিয়ে করে তাদের অবস্থা থেকে পালিয়ে যায়।

হিন্দু ধর্মে দীক্ষিত

উদাহরণস্বরূপ, আমার একজন বন্ধু ছিলেন যিনি তার স্বামী দ্বারা শারীরিক ও মৌখিকভাবে নির্যাতিত হতেন, যিনি একজন হিন্দু পুরুষের সাথে পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন এবং পরে তাকে বিয়ে করেছিলেন। একটি অপমানজনক বিয়ে থেকে পালিয়ে যাওয়ার জন্য তাকে সমর্থন করার পরিবর্তে, তার বাবা -মা তাকে অপমান করে এবং তা বিরুদ্ধে মসজিদে রিপোর্ট করে। ফলস্বরূপ, তাকে শহর এবং নাম পরিবর্তন করতে হয়েছিল। তার জন্য দুঃখজনক বিষয় হল তাকে সবার সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করতে হয়েছিল… .পিতামাতা, ভাইবোন, বন্ধু… সবার সাতে।

আরেকটি উদাহরণ ছিল আমার কাজিন। তার স্বামী একদিন তাকে তিন তালাক দিয়েছিল। কেন সে তা জান তো না। তাৎক্ষণিকভাবে, তাকে তার পরনের কাপড় ছাড়া কিছুই না দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিল।

৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা মধ্যে উষ্ণ গ্রীষ্মের দুপুরে ২টায় কালো বোরকা পরে তার পিতামাতার বাড়িতে ৫ কিমি দূরত্বে হেঁটে আসতে বাধ্য হন তিনি। তীব্র তাপ কারনে সে হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হন। তাকে একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল যেখানে তিনি ভর্তি হওয়ার মাত্র 3 দিন পরে মারা যান।

রঙিন হিন্দু উৎসবের প্রতি আকর্ষণ

হিন্দু উৎসব যেমন হোলি, দিওয়ালি, দুর্গা পূজা, গণপতি মুসলিম উৎসবের চেয়ে বেশি রঙিন এবং আনন্দদায়ক যা স্থায়ী। যার ফলে একজন মানুষ তার জীবনের বিভিন্ন প্রতিকুলতা এবং বিরক্তিকর বিষয় থেকে বের হয়ে আসতে প্রেরণা পািই। ৮০ -এর দশকের পুরনো একটি গান বলে … “মেয়েরা শুধু মজা করতে চায়” অনেকটাই সত্য।

আমার মনে আছে কিভাবে আমি এবং আমার মুসলিম বন্ধু আমাদের হিন্দু বন্ধুদের প্রতি এত হিংসা করতাম। কারন উৎসবের পরের দিন আমাদের অফিসে বিশেষ করে হোলি এবং দুর্গাপুজোর সময় তাদের সমস্ত মজা যখন শেয়ার করত। 

হিন্দু সংস্কৃতির  লিঙ্গ বৈষম্য হীন

উদাহরণস্বরূপ, দিবালির মতো হিন্দু উৎসব। হোলি, দুর্গাপূজা, গণপতি প্রকৃতিগতভাবে অন্তর্ভুক্ত এবং কোন লিঙ্গ বৈষম্য নেই।  সবাই একসাথে অনুষ্ঠান উপভোগ করে এবং একসাথে প্রার্থনা করে। আপনি দেখেছেন যে ইদের মতো মুসলিম উৎসবের সময় সাধারণত পুরুষ এবং মহিলারা আলাদা প্রার্থণা করে থাকে।

কিছু মুসলিম অনুশীলন আছে যা আমি সবসময় ঘৃণ্য পেয়েছি। অ্যাপার্টমেন্ট ভবনের বসবাসের সময় ছাগল জবাই করার ছবি যা খুবই দুঃখ জনক যা স্থানটিকে রক্তাক্ত করে তোলে।

আমি মনে করি এটি অমুসলিম প্রতিবেশীদের প্রতি সত্যিই অসম্মানজনক। এছাড়াও, মহরমের সময় একটি শিশুর কপাল কাটার শিয়া প্রথা, পুরুষরা রাস্তায় হাঁটছে নিজেকে মারধর করেছে এবং এমনকি নিজেদেরকে কেটে ফেলা আরও একটি অভ্যাস যা আমি সবসময় ঘৃণা করি।

মূললেখাটি ইংরেজি থেকে বাংলায় অনুবাদ 

আর পড়ুন…..