পলাশীর যুদ্ধ

পলাশীর যুদ্ধে সিরাজের পরাজয় কি করে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্ত হয়?

Spread the love

পলাশীর যুদ্ধে সিরাজের পরাজয় কি করে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্ত হয়? নবাব সিরাজদৌলা যদি ইংরেজদের হাতে পরাজিত না হয়ে মুঘলদের হাতে পরাজিত হতেন তাহলে কি আমাদের ইতিহাসবিদরা সেটাকে ‘বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্ত যাওয়া’ বলতেন? 

সিরাজের নানা আলীবর্দী খান যখন বাংলা বিহারকে মুঘলদের হটিয়ে নিজের করে নেন তখন সেটা কি ছিলো?
মানে তখন বাংলার স্বাধীনতা হরণ নাকি স্বাধীন কোনটা ঘটেছিলো? আমি প্রশ্ন করতে চাইছি, আলীবর্দীর মসনদ সিরাজের হাত হতে ইংরেজরা না নিয়ে যদি আফগান বিদ্রোহীরা বা মুঘলরা দখল নিতো তাহলে নিশ্চয় বাংলার স্বাধীনতা অস্ত যেতো না?
কারণ মুঘল আফগান ও আলীবর্দী খান সকলেই মুসলমান! কেন সেটা বলছি বলি, মনে করেন যদি মারাঠারা বাংলা বিহার দখল করে নিতো তাহলে সেটাকে কি হিসেবে দেখা হতো?
বাংলার স্বাধীনতা হরণ? মারাঠারা যে বাংলার বাইরের লোক! তাহলে আলীবর্দী খানরা কে ছিলেন? আলীবর্দী খানের পিতা শাহ কুলি খান ছিলেন সম্রাট আওরঙ্গজেবের তৃতীয় সন্তান আজম শাহের দরবারে মদ ঢেলে দেয়ার সামান্য এক কাজের কর্মচারী।
তিনি তার পরিবার নিয়ে ভাগ্যের সন্ধানে বাংলায় এসে উঠেন। আলীবর্দীকে সম্রাট আওরঙ্গজেব ছোটবেলায় স্নেহ করতেন।
বড় হওয়ার পর মুঘল রাজদরবারে চাকরি পান এবং নিজ দখ্যতায় উপরে উঠতে থাকেন। সম্রাট সুজাউদ্দীনের পর তার পুত্র সরফরাজ খান সিংহাসনে বসলে আলীবর্দী খানের কপাল খুলে যায়।

কারণ সরফরাজ খান ছিলেন দুর্বল অদক্ষ এক সম্রাট। সেই সুযোগে আলীবর্দী বাংলা বিহারের দায়িত্ব থাকা অবস্থায় বিদ্রোহ করে নিজেকে স্বাধীন ঘোষণা করেন।

আলীবর্দী খান তার শাসনকালে আফগান ও মারাঠাদের একের পর এক আক্রমন ঠেকাতে অস্থির থাকেন।

এখন প্রশ্ন হলো আলীবর্দী যদি বাংলার স্বাধীন নবাব হন এবং তার নাতির পরাজয় যদি বাংলার পরাজয় হয় তাহলে মারাঠারা যদি বাংলা দখল করত সেটাকে কি বাংলার পরাজয় হিসেবে দেখা হত? অবশ্যই!

এটাই আমাদের ঐতিহাসিকদের নীতি! কারণ মারাঠারা অমুসলমান! বাংলাদেশের ইতিহাস হচ্ছে মুসলমানদের ইতিহাস।

এখানে সেন মারাঠা ইংরেজ সকলেই হানাদার কিন্তু মুঘল আফগান আলীবর্দী সিরাজ সব বাংলার সন্তান! তাদের পরাজয়ে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্ত যায়!

আমি খুব সচেতনভাবেই ইতিহাসকে দেখছি। কিছুতেই ইংরেজ আর মুঘলদের এক করে দেখছি না।

মানছি মুঘলরা এদেশে থেকে এদেশের সন্তানই হয়ে গিয়েছিলেন। তাহলে মারাঠারা বা বাংলার সেন শাসনকে কেন আমরা বিদেশী বলি?

সেনরা এসেছিলো মধ্য ভারত থেকে। সেকথা তো আমরা ভুলে যাইনি।  সিরাজদৌলা বাংলার নবাব ছিলেন। ইংরেজরা সেই বাংলা দখল করে নিয়েছে।

সবই মানা যাচ্ছে। কিন্তু কি করে সিরাজের পরাজয় বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্ত যায়? এর মানে হচ্ছে সিরাজের পরাজয়ে বাংলার মুসলিম শাসনের সূর্য অস্ত গিয়েছিলো।

সেটাই খোলসা করে না বলে ‘বাংলার স্বাধীনতা’ করে নিয়েছে। ‘মুসলিম বাংলা’ এই জাতীয়তাবাদীরাই আমাদের ইতিহাস লিখেছেন।
তারা তো মুঘল আফগান সিরাজ আলীবর্দীকে একটি জাতিই মনে করেন- ‘মুসলমান’! বাকীরা সব বিদেশী!
আরো পড়ুন..