একটি সরোবরে পদ্ম অথবা শাপলার সঙ্গে কচুরিপানাও থাকতে পারে। কিন্তু সে প্রারম্ভিক অবস্থায়। সমস্ত জলাশয়টিই যে একদিন কচুরি পানার দখলে চলে যাবে, সেটা কম বেশি সবাই জানে। কারণ কচুরিপানার বৃদ্ধির হার পদ্ম কিম্বা শাপলার থেকে তো বটেই অন্য যে কোনো উদ্ভিদের চেয়ে সহস্র গুণ বেশি। এটা বুঝেই লোভী শাপলার দল কচুরিপানার সঙ্গে হাত মেলায়। বাবা বাছা করে  জলও ছেড়ে দেয়। উদ্দেশ্য একটাই কচুরিপানার সঙ্গে আত্মীয়তা করে পুকুরের দখল নেওয়া। তারপর পালের গোদা হয়ে বসা। শাপলা বলে কথা!  অনেক উৎকৃষ্ট।  কচুরিপানার দল ওদের মাথায় করে রাখবে। ওরা ভুলে যায় কচুরিপানার দখলে চলে যাওয়া জলাশয়ে শাপলা তো দূরের কথা সামান্য  পানিফলও বাঁচে না।