Home Bangla Blog তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ও মোদীজি

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ও মোদীজি

197

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ও মোদীজি
পর্ব -2
————————————————————————
কাশ্মীরে এরা ব্যাপক ভাবে সংখ্যাগুরু — কেরলে নির্ণায়ক —- আসাম ও পশ্চিম বঙ্গে তীব্র গতিতে বংশ বৃদ্ধি করে চলেছে —- উত্তরপ্রদেশ ও বিহারের টরে টক্কর!! অবশিষ্ট ভারতেও উদ্বেগজনক পরিস্থিতি তৈরী করেছে।

কেরলে তো পপুলার ফ্রন্টের সৈন্য হিসাবে কাজ করছে! একই অবস্থা পশ্চিমবঙ্গে! মা-মাটি-মানুষের সরকার গদি বাঁচানোর জন্য এদের সৈন্য হিসাবে ব্যবহার করে চলেছে!! এক ভামপন্থী সাহিত্যিক অরুন্ধতী, চিত্র পরিচালক ভণ্ড নাগরিক মহেশ ইত্যাদি — পেট্রো ডলার, চীন ও পাকিস্তানের লালসায় ব্যক্তিগত স্বার্থে আকণ্ঠ ডুবে গিয়ে দেশবিরোধী কাজে মত্ত হয়েছে!! মোদীকে সরিয়ে দেশকে বেচে দেওয়ার দালালিতে মত্ত হয়েছে!

ভারত সহ বিশ্বের অনেক দেশ ইসলামিক আতঙ্কবাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে। আরব দেশে পেট্রোল শেষ হলেই ইসলাম কোণঠাসা হয়ে যাবে। শুরু হবে মহামারী —- জলের জন্যে। আর শুরু ভারত থেকেই হবে। কারণ চীন শুধুমাত্র ব্রহ্মপুত্রের উপরেই কব্জা করে নি —- হিমালয়ের আবহাওয়াকে প্রযুক্তির সাহায্যে প্রভাবিত করতে শুরু করেছে!! তা সত্বেও চীনের সবচেয়ে বড় তিন দুর্বলতা —-
1. অর্থ ব্যবস্থা রপ্তানীর উপর বিশেষ নির্ভরশীল,
2. প্রযুক্তি,
3. হিন্দু মহাসাগর।

প্রথম সমস্যার মোকাবিলা করার জন্যে চীন যথেষ্ট বিদেশী মুদ্রার ভাণ্ডার তৈরী করে রেখেছে। ভারতের সঙ্গে পাঙ্গা নিলে চীন বুকের চিন টিনে স্ট্রোক অনুভব করবে। ভারত একলাই সেই ক্ষমতা রাখে —- চাইনিজ দ্রব্য বর্জন করলেই চীনের কোমর ভেঙ্গে যাবে। ক্ষতি ভারতেরও হবে —- চীনের হবে অনেক বেশী। বিশ্ব আর্থিক মঞ্চে সবাই “রেগিং এর রেল” হতে চান। কিন্তু বিতর্ক এই নিয়ে যে — এই রেলের ইঞ্জিন কে হবে — আর কারা হবে বগি!

প্রযুক্তিতে দিনরাত এত পরিশ্রম করেও মিসাইল ও পরমাণু বাদ দিলে পশ্চিমী দেশের তুলনায় চীন এখনও পিছিয়ে। চীনের “স্যাটেলাইট কিলার মিসাইল”কে টক্কর দিতে আমেরিকা “ন্যানো স্যাটেলাইট” লঞ্চ করেছে।

হিন্দুমহাসাগরে ভারত, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়ার ক্ষমতা ক্ষুণ্ণ করে চীন “পল স্ট্রিং” ও “গ্বাদর বন্দরগাহ” এর গেম খেলল! তা সত্ত্বেও ভারতীয় নৌসেনা মোদী জমানায় এই প্রথম আন্দামান থেকে হিন্দুমহাসাগর অহংকারী চীনা সৈনিকের চোখ রাঙানীকে উপেক্ষা করল। তার প্রধান কারণ মোদীজির বিদেশ নীতি।

মনে করে দেখুন — মোদীজির বিদেশ নীতির জন্যেই আজ অস্ট্রেলিয়া, জাপান, ভিয়েতনাম, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, আমেরিকা একত্রিত হয়ে হিন্দুমহাসাগরে চীনের একচ্ছত্র অধীপতি হওয়ার স্বপ্ন চুরমার করে দিয়েছে। অন্যদিকে নিজের ঘরেই চীনকে ঘিরে রাখতে মোদীজির মাইণ্ড ব্লোইং গেম —- ভিয়েতনাম, মায়ানমার, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, মঙ্গোলিয়া, জাপান ইত্যাদি দেশগুলিকে এক ছাতার তলায় আনা।

# চলবে —–

%d bloggers like this: