উৎসর্গ করলাম বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরুধী ভারত বিরুধিদের!!!

Spread the love

১) ভারত বিরুধীঃ  ভারত ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পর ২৭০০ কোটি টাকা অস্ত্র লুট করেছিল?? জানিস?

আমিঃ যা বলেছিস তা মিথ্যা! তবুও তর্কের খাতিরে বলছি! আচ্ছা!! ১ কোটি মানুষকে ৯ মাস খাওয়াতে কত লাগে?  মাথা ঠাণ্ডা করে হিসেব করিস। দেখবি ২৭০০ কোটি টাকার চেয়ে কয়েকশ গুন বেশি। তারপর আশা যাক! এই যুদ্ধে আমার জমি বাঁচাতে কতজন ভারতীয় মারা গেল?? ১০০০০ এর বেশি ভারতীয় সেনা মারা গেছে। দুই সীমান্তে যুদ্ধ করতে কত গোলা বারুদ,  বাংলাদেশে লক্ষ লক্ষ মুক্তি যোদ্দাদের প্রশিক্ষণ দিতে, এবং ৯ মাস ধরে বাংলাদেশের মুক্তি যোদ্ধাদের কত টাকার অস্ত্র দিয়েছিল ভারত??

ভারত বিরুধিঃ আরে কি বলিস  ভারত আমাদের শত্রু!

আমিঃ বাংলাদেশে বিরুদ্ধে যুদ্ধ করারর জন্য বাংলাদেশেরর নিরীহ মানুষদের হত্যা করার জন্য পাকিস্তানকে চীন অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করেছিল।

ভারত বিরুধীঃ আরে ভাই ভারত আমাদের শত্রু। চীন আমাদের বন্ধু।

২) ভারত বিরুধীঃ 1974 সালে আমরা ৩ বিঘা করিডর দিয়েছিলাম ভারতকে! তিন বিঘা মানে কত ঘণ্ডা জানিস?? ৬০ ঘন্ডা জমি। দেখেছিস আমরা কত বিঘা জমি দিয়েছিলাম বেশি??

আমিঃ আর ভারত ছিট মহল চুক্তি করে আমাদেরকে মাত্র  আমাদেরকে ২৫০০০ বিঘা জমি বেশি দিয়েছে।  ৫০০০০০ ঘন্ডা!!  বুঝেছিস ভারত আমাদের কত লক্ষ গুন বেশি দিয়েছে??

ভারত বিরুধীঃ ভাই! এতো যুক্তি মানি না ভারত আমাদের শত্রু।

৩)ভারত বিরুধীঃ ৭৫ থেকে ভারত ফারাক্কা বাধ দিয়ে আমাদেরকে পানির ন্যায্য হিস্যা দেয় নি। তুই জানিস?

আমিঃ ফারাক্কা বাধের কারনে ভারতের কোলকাতা বন্দর চলছে। যার ভোক্তা সংখ্যা  ৩০ কোটির বেশি। কেননা ভারতের পশ্চিম বংগ, বিহার, উড়িশা, ঝাড়খণ্ড,  নেপাল, ভুটান,  ভারতের নথ ইস্ট এ আরো সাতটি রাজ্য এই বন্দরের মাধ্যমে চলতেছে। সবচেয়ে বড় কথা হলো ফারাক্কায় যেভাবে পানির হিস্যার চুক্তি হয়েছিল ঠিক ওইভাবে তিস্তা চুক্তি হওয়ার জন্য আন্দলোন করতেছে তাও আবার শেখ হাসিনার গংঘা চুক্তি অনুসারেই!! বিএনপি এত বছর বিরুধিতা করলেও কিছুদিন আগে বলল শেখ হাসিনা গংঘা চুক্তি অনুসারেই যেন তিস্তা চুক্তি দ্রুত করে!!

ভারত বিরুধীঃ ভারতের পক্ষে কথা বলিস না তো!

আমিঃ বন্যায় শুধু বাংলাদেশ বাসে ভারত বাসে না?? ভারতের পানি গুলির গায়েবী শক্তি আছে যে ওই পারে বন্যা না হয়ে শুধু এই পারে হয়। একটু ভালকরে খোজ নিয়ে দেখিস প্রতিবার বাংলাদেশের চেয়ে ভারতে বন্যায় বেশি মারা যায় বরং বাধ দেয়া তে বন্যা নিয়ন্ত্রণ হয়।তাই আমাদের দেশের অভ্যন্তরে বিভিন্ন জায়গায় বাধ দেয়ার জন্য প্রস্তাব এসেছিল কিন্তু সরকার জমি একোয়ার করতে পারে নি তাই বাস্তবায়ন হয় নি।

ভারত বিরুধীঃ ভারতে পক্ষে কথা
বলিস কেন? ভারত তো আমাদের শত্রু!!

৪) ভারত বিরুধী ঃ ভারতের সাথে আমাদের বিশাল বাণিজ্য ঘাটতি আছে জানিস?  ভারত শুল্ক জটিলতা সৃষ্টি করে!!

আমিঃ  বাংলাদেশে প্রায় ৯৭% পন্য ( তামাক জাত পন্য ছাড়া)ভারতে বিনা শুল্কে প্রেরন করতে পারে।  আর ভারত বাংলাদেশে কোন পন্যই বিনা শুল্কে প্রেরন করতে পারে না। বুঝেছিস?

৫)  ভারত বিরুধী: ভাই এতো কথা বুঝি না ভারত আমাদের শত্রু ! 
তো  শুল্ক জটিলতার ব্যপারে বলতো দেখি!! দেখেছিস ভারত আমাদের শত্রু??

আমি: আমাদের  দেশে কুলাংগার বিএসটিআইয়ের পরিক্ষিত পন্য আমারাই বিঃশাস করতে পারি না সেই জায়গায় ভারত কি তাদের দেশের লোকদের এই কুলাঙ্গার প্রতিষ্ঠানের পরিক্ষীত পন্য কিভাবে খেতে দিবে নিজেরা পরিক্ষা করা ছাড়া?? যেখানে আমারাই পাশাপাশি ভারতীয় ও বাংলাদেশি পন্য থাকলে বাংলাদেশি পন্য টা না কিনে ভারতের পন্য টা কিনি। কারন আমরা জানি আমাদের পন্য ভালো না। তাই  ২০০০০ কোটি টাকার বানিজ্য ঘাততি হয়েছে!! আমরা তিনগুন উৎসাহে যদি ভারতের পন্য ব্যবহার করি ঘাটতি হবে না তো কি হবে?? আপনি সবার আগে আমার মা,বউ,বোনদের বলেন ভারতীয় শাড়ী এবং কসমেটিক না কিনতে!! 

ভারত বিরুধীঃভাই!  ভারত আমাদের শত্রু!!

৬)ভারত বিরুধীঃ হিন্দি চ্যানেল সব আমাদের দেশে চলে কিন্তু আমাদের কোন চ্য্যনেল ভারতে চলে না।তাই প্রতি বছর কোটি টাকার টিভি বিজ্ঞাপন বাংলাদেশের হাত ছাড়া হচ্ছে তুই জানিস?

আমি: আমরা যে জায়গায় আমাদের দেশে আমাদের দেশীয় চ্যানেল না দেখে, সারাদিন স্টার জলসা,  জী বাংলা, লাগিয়ে রাখি। সেই জায়গায় আমাদের চ্যানেল ওই দেশের লোকে দেখবে ওটা ভাবতেও হাসি আসে। ভাই নিজের ঘরের মা,বোনদের কাছ থেকে ভারতীয় চ্যানেল দেখার সময় রিমোট নিতে নাকানি চুবানি খেতে হয়!! আর ভারতীয়রা আমাদের চ্যানেল দেখবে!! তাছাড়া ভারত সরকার বলেছে ভারতীয় চ্য্যনেল গুলি যে ফি ভারত সরকারকে  দিয়ে  থাকে একই পরিমান ফি দিয়ে আমারাও ভারতে চ্যানেল প্রচার করতে পারি।

ভারত বিরুধী: তোর কথা এতো  ভারত ঘেঁষা কেন? ভারত তো আমাদের শত্রু..

৭) ভারত বিরুধীঃ
ভাই,ভারত সীমান্তে গুলি করে হত্যা করে কেন বল??

আমি: আচর্শ্যের কথা হলো ৯৯.৯৯% হলো গরু ব্যবসায়ী!! ভাই! তুই আমার কথা বিঃশাস না করলে ভালো করে লক্ষ্য করলে দেখবি ৯৯.৯৯% হলো গরু কালোবাজারি যারা বিএসএফ এর গুলিতে মারা যায়। তারপরও যদি বিঃশাস না হয় তাহলে বাংলাদেশে সীমান্তে এসে যেকোন বিজিবি সদস্যকে জিজ্ঞেস করিস বাংগালিরা ভারতীয় সীমান্তে কি রকম অত্যাচার করে। আমার বাড়ি সীমান্ত এলাকায় আমি জানি বাংগালি কি জিনিস!! তারপর পুরো পৃথিবীর দিকে তাকিয়ে দেখ যে দেশে ক্ষতি হচ্ছে সে দেশ বাচার জন্য বেড়া দেয়।যেমন,  আমেরিকা মেক্সিকান সীমান্তে বেড়া দিয়েছে কিন্তু কানাডিয়ান সীমান্তে দেয় নি। তেমনি বাংলাদেশও  মায়ানমারের সীমান্তে বেড়া কিছুটা দিয়েছে।এখন পুরা দিতে চাচ্ছে। আর যারা আমাদের সাধীনতা রক্ষা করতে তাদের ২০০০০ সেনাবাহিনী প্রান দিয়েছে তাদের সাথে শুধু ফেলানীর ঢোলটা  বাজানো কি বন্ধুত্বতার লক্ষন?? তাছাড়া তুই সীমান্ত এলাকায় থাকলে বুজতে পারতি বাংলাদেশিরা কিভাবে বেড়া পার হওয়ার চেষ্টা করে!! তাছাড়া এখন  চোরা কারবারিরা মেয়েদের ব্যবহার করে। ভাই, বাংলাদেশিদের জ্বালায় বি এস এফ কতটা দোড়ের উপর থাকে তুই সীমান্ত এলাকায় গেলেই বুঝতে পারবি।আমাদের দেশের সীমান্ত এলাকার ৯৯.৯৯% লোক তা ভালো করেই জানে। অধিকিন্তু অমিত ঘোষকে বিচারের আওতায় আনাও হয়েছিল। ভাই, তোকে শুধু বলব একবার কোলকাতা শহর ঘুরে আসতে!! ওই খানে গেলে তোর আর এই সব প্রশ্ন মনে আসবে না বাংলাদেশীদের তান্ডব দেখে!! তুই আসামে গেলেও বুজবি. আমি তোর বন্ধু তার মানে এই নয় যে আমি তোর বাউন্ডারি টপকে প্রতিদিন চুরি করব আর তুই বন্ধুত্তের খাতিরে চুপ কি করে থাকবি!!

ভারত বিরুধীঃ তোকে তো পুরাই ভারতের মানুষ মনে হচ্ছে!!  ভারত বাংলাদেশের শত্রু”!!

৮) ভারত বিরুধীঃ টিপাইমুখ বাধের ব্যাপারে কিছু বল??ভারত প্রতিবাদের পরেও টিপাইমুখে বাধ দিচ্ছে!!

আমিঃ ভারত টিপাইমুখে বাধ দিয়ে পানি ধরে না রেখে শুধু বিদুৎ উতপাদন করছে! তারমানে ১০০% পানি এই বাংলাদেশ পাচ্ছে।

ভারত বিরুধীঃ এতো কথা বুঝি না, ভারত বাংলাদেশের শত্রু…

৯) ভারত বিরুধীঃ সুন্দর বনের রামপাল বিদু্্যতের কথা বল!

আমিঃ আমাদের সুন্দরবনে আমরাই বিদু্্যতের জন্য তো আমারই জায়গা করে দিলাম!! এইখানে কি ভারত জোড় করে দখল করল নাকি? আমরা এইখান থেকে বিদ্যুত  উৎপাদন করে আমারাই ব্যবহার করব।

ভারত বিরুধীঃ এত কথা বলিস না ভারত আমাদের শত্রু..

১০) ভারত বিরুধীঃ ভারত ভারত আমাদের অনেক বিডিআর মেরে ফেলেছে সেটা কি জানিস??

আমিঃ অথচ আমরা বিচার করে আমাদের ৭০০ জনের উপরে বিডিআর সদস্যকে শাস্তি   দিয়েছিলাম। আমরা কোন ভারতীয় লোক কে দোষী করতে পারলাম না!
ভারত বিরুধীঃ তাও ভারত আমাদের শত্রু..

১১)ভারত বিরুধীঃ ভারত চুর, আইসিসি চুর ভারত আমাদের ক্রিকেট নিয়ে ষড়যন্ত্র করে গত বিশ্বকাপে আমাদের হারিয়ে দিয়েছে! তুই জানিস?

আমিঃ অথচ পাকিস্তান বাংলাদেশের টেস্ট স্টাস্টাসে পেতে বাধা দিলেও ভারতের ডালমিয়ার কারনে টেস্ট খেলুড়ে দেশের খেতাব পায়।

ভারত বিরুধীঃ
আরে ভাই বিশ্বকাপে নো বল দিয়েছিল না?

আমিঃ নো বল তো পাকিস্তানের আম্প্যায়ার আলীম ধার দিয়েছিল!! তাহলে পাকিস্তান বিরুদ্ধতা না করে ভারত বিরুদ্ধতা করছিস কেন? আর তুই এমন ভাব করছিস যেন বাংলাদেশ প্রতি ম্যাচে ভারতকে হারায় আর বিশ্বকাপের ম্যাচটি ভারত দুর্ঘটনাবশত জিতেছিল!  

ভারত বিরুধিঃ ভারতের পপক্ষ হয়ে কথা বলিস না তো! তাও ভারত চুর ভারত আমাদের শত্রু!

আমিঃ ভাই, ধর তুই আমাকে আমার বাড়ির জমি দখলমুক্ত করতে সাহায্য করলি, আমার মা, বোনের ইজ্জত বাঁচালি। তারপর তোর আমার সম্পদ উদ্দার করতে গিয়ে তোর ভাই, তোর ছেলে মারা গেল (১০০০০ এর উপর ভারতীয় সেনা) তারপর কয়েক বছর পরে আমি তোকে বললাম যে তুই নাকি তোর স্বার্থে উপকার করেছিলি!!!

ভারত বিরুধীঃ   এতো কথা বুঝি না।ভারত আমাদের শত্রু আর তুই কি ভারতের মানুষ??

এই পোষ্টটা উৎসর্গ করলাম  বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরুধী ভারত বিরুধিদের!!!