লাভ জিহাদ সম্পকে আপনি সচেতন তো??

Spread the love

#লাভজিহাদের কবলে পড়া #চট্টগ্রামের মেয়ে শ্রীতি চক্রবর্তী র(inter 2nd year) কথা বলছি। অপ্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় এক মুসলিম ছেলের সাথে প্রেম হয় তার। মুসলিম ছেলেটাও ছোটবেলার সংস্কারে পরিপূর্ণ। বাংলাদেশের চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার হামজাপুরের শাহ আলম গাজীর ছেলে আলমগীর হোসাইন। আইনের ছাত্র। কোন সময় জায়গামত কোপ বসাতে হবে আইনের মারপ্যাঁচ সব জানা। মেয়ের ১৮ বয়স হতেই তাকে অপহরণ করল। চট্টগ্রাম,কক্সবাজারের হোটেলে কয়েক রাত সোহাগ রাত কাটায়। রাতের এক ধাক্কা মেয়েটার ব্রেন পর্যন্ত মনে হয় পৌছে গেছে । সম্পূর্ণ ব্রেন ওয়াশড। নাম চেঞ্জড হয়ে নতুন নাম প্রাপ্ত হল খাদিজা আলমগীর। wait wait এখানেই শেষ না। মেয়েটার ব্রেইন ওয়াশড এর শেষ ফল টা দেখার পালা। মেয়ের মা বাবা মামলা করল। আদালতে মেয়েটা তার মা,বাবা,ভাই কে কেন্দ্র করে বলল” তোমরা হিন্দু, তোমরা কাফের, ও আল্লাহ এরা আমাকে নিতে চায়”। হাজার হলেও গর্ভধারিণী মা। দশ মাস দশ দিন গর্ভপীড়া তো আর উনি ছাড়া কেও সহ্য করেন নি। মেয়ের পা জড়িয়ে ধরে কাঁদতে কাঁদতে তাকে বাসায় ফিরে যেতে বললেন। মেয়ে এখন মুসলিম। হিন্দু হয়ে তার পা স্পর্শ??? লাথি মেরে দিল মাকে। বলে উঠল ” তোমরা কাফের, কাফের হয়ে আমাকে স্পর্শ করো কেন”। ব্যাস এখানেই সমাপ্ত। দশ মাস দশ দিনের পীড়ার প্রতিদান। ছোট বেলায় কাধে তুলে ঘুরে বেরানো ভাই এর প্রতিদান, রাজকন্যার মত প্রাণের চেয়েও আগলে রাখত যে বাবা তার প্রতিদান , রাতের এক ধাক্কাতেই….কি মনে হচ্ছে? ছেলেটা এমন করতে পারল? হাহা এটা তো তার পক্ষে যে স্বাভাবিক তা আপনার ভন্ড মানবধর্ম প্রসূত মস্তিষ্কে কিভাবে আসবে? মুসলিম যুবকটির দৃষ্টিতে আপনি হিন্দু কাফের,মুশরিক। আপনার মেয়েকে মুসলিম বানালে বেহেশত যেয়ে সে ৭২ হুর পরী পাবে এমন টাই তার ধর্মীয় বিধান। এক মেয়ের বদলে এত সুযোগ আপনার জন্য কি মিস করবে? এবার বুঝি নিজের মেয়ের কথা বলবেন? এমন মেয়েকে প্রসবের পর মেরে ফেললেও পাপ হত না তাই ভাবছেন? কেন? একি বলেন ছি ছি। আপনিই তো ছেলে মেয়েকে শিখিয়েছেন “যত মত তত পথ”। সব ধর্ম সমান। আপনি তো শিখিয়েছেন ধর্মের নাম মানব ধর্ম বলতে। মেয়েকে প্রাইভেট পড়াতে খুজে খুজে হিন্দু ছেলেকে বাদ দিয়ে মুসলিম ছেলেকে নিয়োগ দেন যদি আবার হিন্দু টিউটরের সাথে মেয়ে প্রেম করে পড়াশোনা নষ্ট করে!! আপনার আদরের মেয়েটি যে মানবতাবাদী। মানব শরীর তার দরকার। হিন্দু হতেই হবে তার কোন দরকার আছে? কি খারাপ লাগছে ভাষা শুনে? আপনি তো বড় দাদা। একমাত্র বোন কে শাসন করেছেন ‘ এই খবর দার প্রেম করলে অবস্থা খারাপ করে দেব” আবার একই সাথে বোনের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন আপনার মুসলিম বন্ধু কে। পরামর্শ ও দিয়েছেন যেন আপনার বোন কে ভাইএর মত দেখেশুনে রাখে। তো ভালভাবেই দেখাশোনা তো করেছে। তো এখন কেন কাদছেন? আপনার আদুরে মেয়ে ভার্সিটি র ভর্তির সময় হেল্পের জন্য খুজে খুজে হাতে লাল সুতা পরা ছেলেকে বাদ দিয়ে অন্য ছেলের সাহায্য কামনা করেন। আপনার আদুরে মেয়ে ভার্সিটি তে বেছে বেছে হিন্দু ছেলেদের avoid করে মানব ধর্মের পরিচয় দিচ্ছে ক্রমাগত। আপনার আদুরে মেয়ে হিন্দু ছেলেদের তার মানব ধর্মের শত্রু মনে করছে। ছোট বেলা থেকে গীতা তো পড়তে বলেন নি। মন্দিরে গেলে যে পড়াশোনা নষ্ট হবে। এখন বড় হয়ে আপনাদের সম্মান একটু নষ্ট করছে এই যা। তো এখন কেন বুক চাপড়িয়ে কাঁদছেন। আপনার কান্না মানায় না। হিন্দু ধর্ম জ্ঞানহীন হয়ে লাভ জিহাদের কবলে পড়ে অনেক হিন্দু মেয়ে আজ সতীনের ঘর করছে,তালাক (divorce) প্রাপ্ত হয়ে নষ্ট পল্লী তে দিন কাটাচ্ছে এমন অনেক উদাহরণ পেয়েও আপনার মত অভিভাবকের টনক নড়েনি। অনেক হিন্দু মেয়ে আছে যারা ছোট বেলা থেকেই সংস্কার সম্পন্ন। তাদের ধর্ম নিষ্ঠা, সততা,ন্যায়পরায়ণতা দেখলে গর্ভ করতে ইচ্ছে করে। হিন্দু ধর্ম নারীদের দেবীর সাথে তুলনা করা হয়েছে। হিন্দু মেয়ে সেই দেবী র প্রতীক। পৃথিবী সৃষ্টির পর হতে আজ অবধি এসব সংস্কার সম্পন্ন হিন্দু নারী তাদের হিন্দু স্বামী র পেশী র শক্তি হয়ে আসছে ।আজ হিন্দু ধর্মে নারীর দেবত্বের মাধুর্য উপলব্ধি করে প্রতিদিন ইস্কন এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে সনাতনের আশ্রয়ে আসছে। তাদের এ আগমন কোন নিছক প্রেম গঠিত নয়। আধ্যাত্মিক দর্শনে অনুপ্রাণিত হয়ে। আর আপনার মেয়েকে আপনি ” আপনার শত্রু,হিন্দু সমাজের কলংক করে গড়ে তুলেছেন। আপনার এমন কান্না শোভা পায়না মা। আপনার চোখের জলের মূল্য আপনার প্রাপ্তবয়স্ক মানবধর্মী মেয়ে দিতে পারবেনা। আমি বা অনেক হিন্দু যুবক যুবতী আছে তারা আপনার চোখের জল দেখে নিজের চোখের জল বিসর্জন করছে। তাদেরকে সন্তান মনে করে চোখের জল মুছে ফেলুন। আপনার মেয়ে এই যুগে কারো সাথে রিলেশন করবে এটাই স্বাভাবিক এই যুগের পক্ষে। তাই মেয়েকে ফ্রাংকলি বন্ধুর মত বলুন। রিলেশন যদি করই তাহলে এক হিন্দু সংস্কার সম্পন্ন ছেলের সাথে করো আর যেন তার স্ট্যাটাস আমাদের স্ট্যাটাসের সাথে যায়। তোমার পছন্দের ওই ছেলেটির সাথেই তোমার বিয়ে দেব। আর নিজের মেয়েকে ছোট বেলা থেকেই অন্যান্য সংস্কার সম্পন্ন দেবীসুলভ হিন্দু মেয়ের মত করে গড়ে তুলুন।